• বৃহস্পতিবার, জুন ২৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৬ সকাল

প্রধানমন্ত্রীর এ সিদ্ধান্ত যুগান্তকারী ও ঐতিহাসিক: হেফাজত আমির আহমদ শফী

  • প্রকাশিত ১০:৩০ রাত আগস্ট ১৩, ২০১৮
হেফাজত আমির ও আল-হাইয়াতুল উলইয়ার চেয়ারম্যান শাহ্ আহমদ শফী
হেফাজত আমির ও আল-হাইয়াতুল উলইয়ার চেয়ারম্যান শাহ্ আহমদ শফী। ছবি: সংগৃহীত

দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমমান অনুমোদন করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন হেফাজত আমির।

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষার সর্বোচ্চ স্তর দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি সাহিত্য)-এর সমমানের আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত হয়েছে। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই সিদ্ধান্তের জন্য তাঁকে ধন্যবাদ জানিয়ে হেফাজত আমির ও আল-হাইয়াতুল উলইয়ার চেয়ারম্যান শাহ্ আহমদ শফী বলেন, ‘মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত আইন দ্রুত সময়ের মধ্যে সংসদে পাসের মাধ্যমে তা চূড়ান্ত হবে।’ 

সোমবার এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

আহমদ শফী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার মন্ত্রিসভা আজ যে অনুমোদন দিয়েছে, তা ইতিহাস হয়ে থাকবে। বিশেষত কওমি মাদ্রাসা অনুসৃত মূলনীতি অক্ষুণ্ন রাখা এবং কোনও রকম প্রশাসনিক কর্তৃত্ব ও নিয়ন্ত্রণ থেকে মুক্ত রেখে মান দেওয়ার ব্যবস্থা এগিয়ে নেওয়ার প্রশ্নটিতে প্রধানমন্ত্রী পরিপূর্ণ সমর্থন ও সহযোগিতার হাত সম্প্রসারিত করেছেন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ সিদ্ধান্ত যুগান্তকারী ও ঐতিহাসিক বলে মন্তব্য করে আহমদ শফী বলেন, ‘এই ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের ফলে বাংলাদেশের কোরআনি শিক্ষা ও কওমি অঙ্গনের অসংখ্য ছাত্রছাত্রী উপকৃত হবেন। দীনের তালিম, দাওয়াত, শিক্ষা বিস্তার, জাতির মানবিক ও নৈতিক সেবার ক্ষেত্রে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য এ মান দেওয়ার বিষয়টি অনেক আনন্দদায়ক ও খুশির খবর। এর মাধ্যমে কওমি শিক্ষার্থীদের দীনি খেদমতের পরিধি আরও বিস্তৃত হবে। আজকের এই অনুমোদনে সারাদেশের সর্বস্তরের আলেম ও শিক্ষার্থীরা আনন্দিত ও উৎফুল্ল’।