• বুধবার, জুন ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪১ দুপুর

জামিন পাননি নওশাবা

  • প্রকাশিত ১১:০৬ রাত আগস্ট ১৩, ২০১৮
Actor Quazi Nawshaba Ahmed
পুলিশ প্রহরায় অভিনেত্রী-মডেল কাজী নওশাবা আহমেদ (ফাইল ছবি)। ছবি: ফোকাস বাংলা

আদালত শুনানি নিলেও এখনও কোনও সিদ্ধান্ত জানাননি।

চিকিৎসা শেষে ফের আদালতে নেওয়া হয়েছে আইসিটি আইনে গ্রেফতার অভিনেত্রী-মডেল কাজী নওশাবা আহমেদকে। আইসিটি আইনে দায়ের করা মামলায় দ্বিতীয় দফার রিমান্ড শেষে সোমবার (১৩ আগস্ট) দুপুরের পর আদালত প্রাঙ্গণে নেওয়ার পর অসুস্থ পড়লে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

পরবর্তীতে কাজী নওশাবা আহমেদকে চিকিৎসা শেষে বিকালে তাকে অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের পরিদর্শক মো. রফিকুল ইসলাম।

তদন্ত কর্মকর্তা জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আর রিমান্ড আবেদন করেননি বলেই জানিয়েছেন নওশাবার আইনজীবী এ এইচ ইমরুল কাওসার জানিয়েছেন। তবে নওশাবার পক্ষে জামিনের আবেদন করেছেন আইনজীবী এ এইচ ইমরুল কাওসার।

আদালত শুনানি নিলেও এখনও কোনও সিদ্ধান্ত জানাননি।

উল্লেখ্য, অসুস্থ হয়ে পড়ায় আদালত প্রাঙ্গন থেকে সোমবার বেলা সাড়ে ৩টায় নওশাবাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. নাছের আহমেদ জানান, নওশাবা ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। চিকিৎসা শেষে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। 

রাজধানীর জিগাতলায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে চলমান আন্দোলনে সহিংসতার ঘটনা শুরু হওয়ার পর শনিবার বিকেলে ফেইসবুক লাইভে এসে নওশাবা দাবি করেছিলেন, রাজধানীর জিগাতলায় একজন শিক্ষার্থীর চোখ তুলে ফেলা হয়েছে ও চার শিক্ষার্থীকে মেরে ফেলা হয়েছে। তবে খোঁজ নিয়ে তার এসব তথ্যের কোনও সত্যতা পাওয়া যায়নি। এ কারণে বিতর্ক সৃষ্টি হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও উসকানিমূলক বক্তব্য ছড়ানোর অভিযোগে আইসিটি আইনে শনিবার (৪ আগস্ট) রাতেই উত্তরা থেকে গ্রেফতার হন এই অভিনেত্রী। গ্রেফতার হওয়ার পরে নওশাবা জানান, তিনি নিজের চোখে এসব ঘটনা ঘটতে দেখেননি। অন্যের মুখে শুনে তিনি পরে ফেইসবুকে এসব তথ্য শেয়ার করেছিলেন।