• সোমবার, আগস্ট ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪২ সকাল

দুর্বল হয়ে পড়ছে ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’, রবিবার পর্যন্ত বৃষ্টি হতে পারে

  • প্রকাশিত ০৭:০৫ রাত অক্টোবর ১২, ২০১৮
cyclone
প্রতীকী ছবি। ছবি- বিগস্টক

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

শুক্রবার আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভারতের উড়িষ্যা এবং তৎসংলগ উপকূলীয় এলাকায় অবস্থারত ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ সামান্য উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর এবং দুর্বল হয়ে একই এলাকায় গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

এটি শুক্রবার সকাল ৬টায় ভারতের উড়িষ্যা ও তৎসংলগ উপকূলীয় এলাকায় অবস্থান করছিল। এটি আরও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমশ দুর্বল হতে পারে।

গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

নিম্নচাপের প্রভাবে চট্টগ্রাম, বরিশাল, খুলনা, ঢাকা, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। রবিবার পর্যন্ত বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভারতের পূর্বাঞ্চলে আঘাত হানা প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র তাণ্ডবে নয়জনের মৃত্যু হয়। অসংখ্য বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং গাছ ও বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে গেছে। প্রায় তিন লাখ বাসিন্দা নিরাপদ উঁচু জায়গায় সরে যেতে বাধ্য হয়েছেন।



সূত্র: ইউএনবি