• বুধবার, জুলাই ২৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৪ রাত

খালেদার সাজার রায়ে আদালত বর্জন কর্মসূচি, দুই পক্ষে উত্তেজনা

  • প্রকাশিত ০২:১২ দুপুর অক্টোবর ৩১, ২০১৮
সুপ্রীম কোর্ট
ফাইল ফটো

বুধবার সকালে সমিতি আদালতে ঢোকার প্রধান দুটি ফটকে তালা লাগিয়ে  বর্জন কর্মসূচি শুরু করে। কিছুক্ষণ পরে আওয়ামী সমর্থক আইনজীবীরা তালা ভাঙার চেষ্টা করলে দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিচারিক আদালতের সাজা ৫ বছর থেকে ১০ বছর বাড়িয়ে হাইকোর্টের দেয়া রায়ের প্রতিবাদে আদালত বর্জন কর্মসূচি পালন করছে  সুপ্রিম কোট আইনজীবী সমিতি।

এদিকে এ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগপন্থী আইনজীবী ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে।  

বুধবার সকালে সমিতি আদালতে ঢোকার প্রধান দুটি ফটকে তালা লাগিয়ে  বর্জন কর্মসূচি শুরু করে। কিছুক্ষণ পরে আওয়ামী সমর্থক আইনজীবীরা তালা ভাঙার চেষ্টা করলে দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে।

এসময় বিএনপি সমসর্থক আইনজীবীদের উপস্থিতিতে আইনজীবী সমিতির সভাপতির কক্ষের সামনের তালা ভাঙতে না পারলেও কারও অনুপস্থিতির সুযোগে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের পাশের ফটকের তালাটি ভেঙে ফেলে আওয়ামী সমর্থকরা।

সর্বশেষ বেলা ১২টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত  আদালত চত্বরে দু’পক্ষের বিক্ষোভ হতে দেখা গেছে।

এদিকে আদালত সূত্র জানায়, আইনজীবীদের উপস্থিতি কম থাকলেও সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগে নির্ধারিত সময় থেকেই চলছে আদালতের কার্যক্রম।

মঙ্গলবার হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা বৃদ্ধি করে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়। পাঁচ বছরের সাজা দ্বিগুণ করে দেয়া হয়।

এই রায়কে ‘বেআইনী’ দাবি করে ওইদিনই বিএনপি নেতৃত্বাধীন সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি আজ বুধবার আদালত বর্জনের কর্মসূচি ঘোষণা করে। সে অনুযায়ী সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে সভাপতির কক্ষের সামনে গেটে তালা লাগিয়ে আদালত বর্জনের পক্ষে বিক্ষোভ করতে থাকে। এই বিক্ষোভে অংশ নেয় বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা।

এছাড়া আইনজীবী সমিতি ভবন থেকে হাইকোর্ট বিভাগের অ্যানেক্স ভবনের দিকে যাওয়ার পথে অর্থাৎ অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের পাশের গেটেও তালা দেয়া হয়। এ কারণে সকাল থেকে কিছু আইনজীবী নিচতলার সিঁড়ি দিয়ে আপিল বিভাগ এবং হাইকোর্ট বেঞ্চগুলোতে যেতে দেখা যায়।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বার সভাপতির কক্ষের সামনের দিকে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সভাপতি ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনের নেতৃত্বে আইনজীবীরা মিছিল নিয়ে আসলে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। উভয়পক্ষ এ সময় হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় আওয়ামীপন্থী আইনজীবীরা তালা ভাঙতে গেলে বিএনপিপন্থীরা বাধা দেয়। তবে এই সুযোগে অ্যানেক্স ভবনের দিকের গেটের তালা হাতুড়ি দিয়ে ভেঙে দেয়া হয়।

ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন ইউএনবি'কে বলেন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিকে রাজনৈতিক মঞ্চ বানিয়ে ফেলা হয়েছে। রায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করতে আইনিভাবেই করতে হবে।

তিনি বলেন, আদালত বর্জনের সিদ্ধান্ত আইনজীবী সমিতির সিদ্ধান্ত নয়। আদালত বর্জন করলে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা করতে পারে। গেটে তালা দিয়ে সাধারণ আইনজীবীদের তারা বাধ্য করতে পারে না। এ তালা ভাঙতে হবে।

এর আগে বিক্ষোভ চলাকালে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘ঘোষিত আদালত বর্জন কর্মসূচিতে সাধারণ আইনজীবীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে যোগ দিয়েছে। তারাই সুপ্রিম কোর্ট আদালত ভবনের গেটে তালা দিয়েছে।’