• বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৪৯ সন্ধ্যা

ঈশ্বরদীতে গুলিতে নিহত মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী লীগ নেতা সেলিম

  • প্রকাশিত ১১:৫৩ সকাল ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৯
মুস্তাফিজুর রহমান সেলিম
পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওবীর মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান সেলিমকে (৬৭) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা

রাত ৯টার দিকে রূপপুর বিবিসি বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে তাকে কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওবীর মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান সেলিমকে (৬৭) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার রাত ৯টার দিকে পাকশী ইউনিয়নের রূপপুর গ্রামে তার বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। 

মুস্তাফিজুর রহমান সেলিমের ছোট ভাই রুবেল হোসেন জানান, রাত ৯টার দিকে রূপপুর বিবিসি বাজার থেকে হেঁটে তিনি বাড়ি ফিরছিলেন। তিনি বাড়ির সামনে এসে পৌঁছালে কয়েকজন  একটি মোটরসাইকেল থেকে কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে পালিয়ে যায়। তার চিৎকারে পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা তাকে দ্রুত প্রথমে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাত ১০টার দিকে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্ললক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শফিকুল ইসলাম শামিম জানান, তিনি বুকে ও পিঠে একাধিক গুলিবিদ্ধ হয়েছিলেন। একটি গুলি বের করার পর তাকে দ্রুত রাজশাহীতে স্থানান্তর করা হয়। কিন্তু পথিমধ্যে তিনি মারা যান।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।তবে কারা, কি কারণে মোস্তাফিজুর রহমান সেলিমকে গুলি করেছে তা এখনও জানা যায়নি। গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর হাসপাতালে আসা পর্যন্ত তার জ্ঞান ছিল। কিন্তু অন্ধকার থাকায় কাউকে চিনতে পারেননি বলে জানিয়েছিলেন। ঘটনা তদন্তে কাজ শুরু করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।