• রবিবার, আগস্ট ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৩৭ রাত

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী: রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘৃণাস্তম্ভ নির্মাণ করা হবে

  • প্রকাশিত ০৭:৪২ রাত ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৯
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। ফাইল ছবি

'পাকিস্তানি বাহিনী এবং রাজাকারদের প্রতি রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘৃণা প্রকাশে লক্ষ্যে সরকারের এই উদ্যোগ'

পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী এবং রাজাকারদের প্রতি সমগ্র রাষ্ট্রের ঘৃণার নিদর্শন স্বরূপ রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘৃণাস্তম্ভ নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বৃহস্পতিবার সংসদে কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম আলতাফ জর্জের পক্ষে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মুজিবুল হকের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, “দেশের স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকার ও পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘৃণা প্রকাশের লক্ষ্যে সরকার কেন্দ্রীয়ভাবে ঘৃণাস্তম্ভ নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছে। প্রকল্পের জন্য জায়গা নির্বাচনের কাজ চলমান রয়েছে”।

আরেক প্রশ্নের জবাবে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, “মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে সরকার। আগামী বাজেটে এ জন্য ৪ লাখ কোটি টাকা বরাদ্দ রয়েছে”।

ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, “এরই মধ্যে তালিকা থেকে ২০ হাজার ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। এখন ১ লাখ ৮২ হাজার মুক্তিযোদ্ধা ভাতা পাচ্ছেন। ভারতীয় তালিকা, মুবিজনগর সরকারের কর্মকর্তা-কর্মচারী শিল্প অভিনেতাসহ যারা ওই সময় কর্মরত ছিলেন, তাদেরও মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় আনা হবে। আগামী মার্চ মাসে এ পুর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ করা হবে”।

এসময় নতুনভাবে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) গঠন করা হবেও জানান তিনি।