• সোমবার, জুন ২৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৩৭ সন্ধ্যা

বাণিজ্য মেলায় ভ্যাট আদায়ের রেকর্ড

  • প্রকাশিত ০৫:১৪ সন্ধ্যা ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৯
বাণিজ্য মেলা
ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। ফাইল ছবি: রাজীব ধর/ঢাকা ট্রিবিউন

আইন অনুসারে প্রতিটি পণ্য ও সেবা ক্রয়ের সময় ভ্যাট চালান ইস্যু করা বাধ্যতামূলক

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা থেকে বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রেকর্ড পরিমাণ ভ্যাট আহরণ করেছে ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কর্তৃপক্ষ।

এদিন বিভিন্ন স্টল থেকে সংগৃহীত ভ্যাটের পরিমাণ ছিল প্রায় এক কোটি টাকা। 

মেলার ট্রেজারি চালান যাচাই শেষে শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) এই তথ্য জানা গেছে। আগেরদিন অর্থাৎ ৬ ফেব্রুয়ারি আহরিত ভ্যাটের পরিমাণ ছিল ৪৪ লাখ টাকা। 

ঢাকা পশ্চিম ভ্যাট কর্তৃপক্ষের কমিশনার ড. মইনুল খান ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, সাধারণত মেলার অন্যান্য দিনে গড়ে প্রায় ১০ থেকে ১২ লাখ টাকার ভ্যাট আদায় হয়ে আসছিল। গত ২৮ জানুয়ারি থেকে ৩টি দল গঠন করে মেলায় বিশেষভাবে তদারকি শুরু করে কর্তৃপক্ষ।

তদারককারী দলের সদস্যরা মেলায় অংশ নেওয়া বিভিন্ন স্টলে গিয়ে ব্যবসায়ীদের ভ্যাট আইন মানতে উদ্বুদ্ধ করেন। এতে সাড়া দেন ব্যবসায়ীরা।

ড. মইনুল খান বলেন, এসময় ২৫টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগে মামলাও দায়ের করা হয়। এসব মামলায় পশ্চিম ভ্যাট কমিশনারেট অভিযুক্তদের বিভিন্ন পরিমাণে অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করে। 

অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে বারবার অনুরোধ সত্ত্বেও ক্রেতাদের কাছ থেকে ভ্যাট আদায় করলেও তা সরকারি কোষাগারে জমা দেয়নি এবং ভ্যাট চালান ইস্যু করেনি। 

এ পর্যন্ত (৭ জানুয়ারি) বাণিজ্য মেলা থেকে মোট আহরিত ভ্যাটের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫ দশমিক ৩০ কোটি টাকা। গতবছর ২০১৮ এ বাণিজ্য মেলা থেকে ভ্যাটের মোট পরিমাণ ছিল ৫ কোটি টাকা। 

চলতি মেলায় আরো দুদিনে ৬ কোটি টাকার বেশি ভ্যাট সংগ্রহ করা যাবে বলে আশা করছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, বাণিজ্য মেলায় অংশ নেওয়া অধিকাংশ পণ্যে ৫ শতাংশ ব্যবসায়ী ভ্যাট প্রযোজ্য। আইন অনুসারে প্রতিটি পণ্য ও সেবা ক্রয়ের সময় ভ্যাট চালান ইস্যু করা বাধ্যতামূলক।