• মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৩০ সকাল

বরিশালে কারাগারের ভেতরেই কয়েদীর আত্মহত্যা

  • প্রকাশিত ০৮:৫০ রাত মার্চ ১, ২০১৯
বরিশাল কারাগার
বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগার। ফাইল ছবি/ঢাকা ট্রিবিউন

"এ ঘটনায় সংশ্লিষ্টদের দায়িত্ব অবহেলার বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হবে"

বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন ১০ বছর কারাদণ্ডের সাজা পাওয়া এক কয়েদী। শুক্রবার দুপুরে কারাগারের বন্ধ থাকা ডিভিশন ভবনের রান্নাঘরের আড়ায় ঝুলে সে আত্মহত্যা করে বলে জানা গেছে।

আত্মহননকারী কবির সিকদার (৪০)-এর বাড়ি পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার জামিরতলা এলাকায়। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার প্রশান্ত কুমার বণিক ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত কয়েদী কবির সিকদারকে গত ২ অক্টোবর ভোলা জেলা কারাগার থেকে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তরিত করা হয়। অসুস্থ থাকায় বরিশালে আসার পর তিনি শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকদের পরামর্শও নিচ্ছিলেন। পাশাপাশি জেলখানায় ঝাড়ুদারের কাজ করতেন।

কারাগার সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার দুপুরে বেশ কিছু সময় ধরে তাকে নির্ধারিত কাজের জায়গায় না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। একপর্যায়ে কারা অভ্যন্তরে বন্ধ থাকা ডিভিশন ভবনের রান্নাঘরের আড়ার সঙ্গে গামছায় ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে পাওয়া যায়। এরপর তাকে উদ্ধার করে প্রথমে জেল হাসপাতাল ও পরে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

ময়নাতদন্ত এবং আইনি প্রক্রিয়া শেষে তার মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছে কারা পুলিশ।

জেল সুপার বলেন, ধারণা করা হচ্ছে কবির কৌশলে তার নির্ধারিত স্থান থেকে সরে গিয়ে দেয়াল টপকে বন্ধ থাকা ডিভিশন ভবন এলাকায় যায়। তবে এ ঘটনায় সংশ্লিষ্টদের দায়িত্ব অবহেলার বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হবে।