• রবিবার, মে ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৯ রাত

শ্লীলতাহানির অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

  • প্রকাশিত ১০:১৫ রাত মার্চ ১৪, ২০১৯
আওয়ামী লীগ নেতা  আব্দুল মান্নান
অভিযুক্ত ইউপি সদস্য এবং আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মান্নান । ছবি: মোয়াজ্জেম হোসেন/ ঢাকা ট্রিবিউন।

এই ঘটনা নিয়ে ভুক্তভোগীর জবানবন্দীমূলক একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ায় হইচই পড়ে যায় উপজেলা প্রশাসনে

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে ৭ম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে শারীরিকভাবে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনসুর আলী ঢাকা ট্রিবিউনকে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলায় অভিযুক্ত নুরুজ্জামান ওরফে মান্নান পাটগ্রাম ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও পাটগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।  তিনি বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণে ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা নুরুজ্জামান ওরফে মান্নান গত ১০ মার্চ পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের দিন দুপুরে ধনীরটারি এলাকায় ভুক্তভোগী ছাত্রী বাড়িতে ঢুকে তাকে একা পেয়ে তার শ্লীলতাহানি করেন এবং ধর্ষণের চেষ্টা চালান। পরে বাসার লোকজন চলে আসলে তিনি পালিয়ে যান সেখান থেকে।

পরবর্তীতে ঘটনাটি জানাজানি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এই ঘটনাটি উল্লেখ করে ঐ আওয়ামী লীগ নেতার বিচার দাবি করেন এলাকার সচেতন কিছু মানুষ। এর ধারবাহিকতায় তারা এই ঘটনা নিয়ে ভুক্তভোগীর জবানবন্দীমূলক একটি ভিডিও ফেসবুকে শেয়ার করলে তা মুহুর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। হইচই পড়ে যায় উপজেলা প্রশাসনে। এক পর্যায়ে স্কুল ছাত্রীর পরিবারের লিখিত অভিযোগ পেয়ে পাটগ্রাম থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং ভুক্তভোগী ছাত্রীসহ তার পরিবারের সাথে কথা বলে ঘটনার সত্যতা পায় বলে জানান ওসি মনসুর আলী।

এদিকে, এলাকা ছেড়ে পলাতক আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউপি সদস্য নুরুজ্জামান ওরফে মান্নানের লোকজন বুধবার বিষয়টি স্থানীয়ভাবে শালিস-মীমাংসা করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে বিভিন্নভাবে ভুক্তভোগীর পরিবারকে  হুমকি-ধামকি দিয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন ঐ স্কুল ছাত্রীর বাবা। তিনি জানান, এই ঘটনার পর তার মেয়ে আর স্কুলে যেতে পারছে না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাটগ্রাম থানার ওসি মনসুর আলী বলেন, “এই ঘটনায় আমরা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। পুলিশ ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সেখানে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে শ্লীলতাহানির সত্যতা পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামি মান্নানকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে”।