• শুক্রবার, আগস্ট ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫১ রাত

শিক্ষামন্ত্রী: কোচিংয়ে বাধ্য করা কোনো শিক্ষকের কাজ হতে পারে না

  • প্রকাশিত ০৪:৪১ বিকেল মার্চ ১৬, ২০১৯
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি
শুক্রবার শরীয়তপুর সরকারি কলেজের ৪০ বছর পূর্তি ও পুনর্মিলনী উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ছবি: ইউএনবি

'শিক্ষকদের মর্যাদা তাদের নিজেদেরই ধরে রাখতে হবে'

গাইড বই পড়ানো এবং কোচিং করতে বাধ্য করা কোনো শিক্ষকের কাজ হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শুক্রবার শরীয়তপুর সরকারি কলেজের ৪০ বছর পূর্তি ও পুনর্মিলনী উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, "কিছু অসাধু শিক্ষকের সাথে নোট-গাইড বই প্রস্তুতকারীদের যোগসাজশ রয়েছে। তারা কমিশন নিয়ে পছন্দের নোট-গাইড বই কিনতে ছাত্রছাত্রীদের উৎসাহিত করছেন। এছাড়া অনেক শিক্ষক শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট ও কোচিংয়ে আসতে বাধ্য করছেন। কোনো শিক্ষার্থীকে নোট-গাইড বই পড়তে উৎসাহিত করা, প্রাইভেট-কোচিংয়ে আসতে বাধ্য করা এবং কোচিংয়ে না আসলে ফেল করানো শিক্ষকের কাজ হতে পারে না"।

"শিক্ষকতা একটি মহান পেশা। শিক্ষকদের মর্যাদা তাদের নিজেদেরই ধরে রাখতে হবে। এ দুর্নাম যেন আমাকে আর শুনতে না হয়। আমরা এ দুর্নাম থেকে মুক্তি পেতে চাই। শ্রেণিকক্ষে পাঠ্যবই যত্নসহকারে শেখানো হলে, পাঠদানে অযত্ন-অবহেলা না হলে শিক্ষার্থীদের নোট বই, গাইড বই ও প্রাইভেট-কোচিংয়ের ওপর নির্ভরশীল হতে হবে না," যোগ করেন তিনি।

দীপু মনি বলেন, "শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ গত ১০ বছরে শিক্ষা খাতে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জন করেছে। এ অর্জনের ওপর ভিত্তি করে আগামী দিনে আরও বহুদূর এগিয়ে যেতে হবে। এ জন্য শিক্ষার মান আরও উন্নত করতে হবে। সে ক্ষেত্রে সব শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সহযোগিতা প্রয়োজন"।

শিক্ষার্থীদের শুধু ভালো ফল করলেই হবে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, "তাদের নৈতিকতা, মানবতা, দেশপ্রেম, সততা ও নিষ্ঠা শেখাতে হবে। তাদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। শিক্ষকদের কাছ থেকে শিক্ষার্থীরা সঠিক শিক্ষা পেয়ে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠবে। তাহলে আমরা সারাবিশ্বে মাথা উচু করে মর্যাদা নিয়ে দাঁড়াতে পারব। কোনো দেশের কারো কাছে আমাদের মাথা নত করতে হবে না"।

দেশের অর্ধেক জনসংখ্যা নারীরা পিছিয়ে থাকলে দেশ, জাতি ও সমাজ কোনোদিন এগিয়ে যেতে পারবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, "নারীর অগ্রযাত্রার শত্রু মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদ। তাদের যারা প্রশ্রয় দেয় এবং তাদের নিয়ে যারা রাজনীতির নামে অপরাজনীতি করে তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। নারীরা এগিয়ে গেলে পুরুষদের কোনো ক্ষতি হবে না, বরং পুরুষরা লাভবান হবে"।

কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. মনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম, শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু ও আওয়ামী যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল।