• রবিবার, জুলাই ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৩৭ বিকেল

মোস্তাফা জব্বার: বাংলাদেশের সব গ্রাম ডিজিটাল গ্রামে রুপান্তরিত হচ্ছে

  • প্রকাশিত ১০:০৬ রাত মার্চ ৩০, ২০১৯
ডাক, টেলিযোগাযোগ  মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ছবি: মাহমুদ হোসেন অপু/ঢাকা ট্রিবিউন (ফাইল ছবি)।

'বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল যুগে প্রবেশ করেছে'

বাংলাদেশের সব গ্রাম ডিজিটাল গ্রামে রুপান্তরিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। শনিবার নাটোরের সিংড়া থানার সার্ধশতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে সিংড়া কোর্ট মাঠে শোভাযাত্রা পরবর্তী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন বলে বাসসের একটি খবরে বলা হয়েছে। 

মোস্তাফা জব্বার বলেন, "বাংলাদেশের সকল গ্রাম হবে ডিজিটাল। এই লক্ষে গ্রামীণ জনপদে তথ্য প্রযুক্তির সকল সুবিধা পৌঁছে দিতে কাজ করছে সরকার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তার নির্বাচনী ইশতেহারে যে আমার গ্রাম আমার শহরের কথা বলেছিলেন তা আজ ডিজিটাল গ্রামে রুপান্তর ঘটছে"।

"আগামীতে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সম্পদ হবে মানব সম্পদ। সেই সম্পদ গড়ে তোলার জন্য প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার। আমাদের অতীতের সময়ের মধ্যে গত ১০ বছরে আমরা ডিজিটাল যুগে এসে পৌঁছেছি। এই দেশের অমিত সম্ভাবনাময় যুব শক্তি তথ্য প্রযুক্তি খাতকে ব্যবহার করে দেশকে উন্নত বাংলাদেশের পর্যায়ে নিয়ে যাবে", যোগ করেন তিনি।

এসময় তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, "১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদ্যোগে বাংলাদেশ আইটিএল এর সদস্য পদ লাভ করে এবং বেতবুনিয়াতে স্থাপিত হয় ভূ উপগ্রহ কেন্দ্র। বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল যুগে প্রবেশ করেছে"।

নাটোরের পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে সভায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব এম জিয়াউল আলম, পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের ডি আই জি এম. খুরশীদ হোসেন, নাটোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শাহরিয়াজ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এর আগে প্রধান অতিথি বেলুন ও ফেস্টুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। এরপর এর একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয় থানার প্রতিষ্ঠাবার্ষীকী উপলক্ষে।

উল্লেখ্য, ১৮৬৯ সালের ২০ মার্চ সিংড়া থানা স্থাপিত হয়। ১৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সিংড়া থানা পুলিশ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।