• মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৫:২০ সন্ধ্যা

বাংলা না জানায় আদিবাসী রোগীর সঙ্গে চিকিৎসকের দুর্ব্যবহার

  • প্রকাশিত ০৪:২৩ বিকেল এপ্রিল ৮, ২০১৯
চিকিৎসক
প্রতীকী ছবি

একপর্যায়ে রোগীকে চেম্বার থেকে বের করেও দেন চিকিৎসক।

বাংলা ভাষা না জানায় চট্টগ্রামের মা ও শিশু হাসপাতালে চিকিৎসকের দুর্ব্যবহারের শিকার হয়েছেন এক আদিবাসী রোগী।

জানা যায়, আদিবাসী তরুণ কান্তি চাকমা গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার চিকিৎসার জন্য ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে গত বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের মা ও শিশু হাসপাতালে যান।

অভিযোগ উঠেছে, চিকিৎসক মোসলেহ উদ্দিনের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি তরুণকে ভর্ৎসনা করেন বাংলা ভাষা না জানার কারণে। একপর্যায়ে রোগীকে চেম্বার থেকে বের করেও দেন তিনি। পরে এ বিষয়ে ভুক্তভোগী রোগীর ছেলে আলিয়েন চাকমা বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করলে জনরোষের সৃষ্টি হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে হাসপাতালের পরিচালক ডা. নুরুল হক ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, এ ঘটনায় ইতোমধ্যে এক জ্যেষ্ঠ্য চিকিৎসকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘‘ভুক্তভোগী রোগী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে চিকিৎসকের দুর্ব্যবহারের কথা উল্লেখ করে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। আমরা তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। যত দ্রুত সম্ভব ওই কমিটিকে তদন্তের রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। অপরাধ প্রমাণিত হলে অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’

অভিযুক্ত চিকিৎসক মোসলেহউদ্দিন শাহেদ বর্তমানে ছুটিতে রয়েছেন। মঙ্গলবার তার যোগদানের কথা রয়েছে, জানান ডা. নুরুল হক।

তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত চিকিৎসককে ফোন করা হলে তিনি তা রিসিভ করেন নি।