• মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:১৫ সন্ধ্যা

জাবিতে খেলতে এসে হামলার শিকার ইবির হ্যান্ডবল টিম

  • প্রকাশিত ০৮:৫৮ রাত এপ্রিল ১০, ২০১৯
জাবিতে ইবি খেলোয়াড় মারধর
জাবিতে খেলতে এসে বুধবার হামলার শিকার ইবির খেলোয়াড়দের দু'জন। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

খেলা দেখতে আসা কয়েকজন জাবি শিক্ষার্থী মাঠে ঢুকে ইবির খেলোয়াড়দের এলোপাথাড়ি মারধর শুরু করে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) হ্যান্ডবল খেলতে এসে হামলার শিকার হয়েছেন কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় হ্যান্ডবল টিম। এতে সাত খেলোয়াড় ও দুই কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। আহতদের কয়েকজনকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বুধবার (১০ এপ্রিল) বিকেল পাঁচটার দিকে জাবির কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় বঙ্গবন্ধু আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় চ্যাম্পিয়নশিপ-২০১৯ এর হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতায় জাহাঙ্গীরনগর ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যকার সেমিফাইনাল খেলা চলছিল। 

উল্লেখ্য, গত ৮ এপ্রিল ‘হত্যার হুমকি’র অভিযোগ তুলে খেলা শুরুর ১৫ মিনিট আগে মাঠ ছেড়েছিলেন ইবির খেলোয়াড়রা। ওইদিন স্থগিত হওয়া খেলা বুধবার আবার শুরু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দ্বিতীয়ার্ধের ১২ মিনিটের সময় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দল তিন পয়েন্টে এগিয়ে ছিল। এসময় ইবির এক খেলোয়াড় ফাউল করলে খেলা দেখতে আসা কয়েকজন জাবি শিক্ষার্থী উত্তেজিত হয়ে মাঠে ঢুকে ইবির খেলোয়াড়দের এলোপাথাড়ি মারধর শুরু করে। 

এতে ইবির শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ সোহেল, কর্মকর্তা শাহ আলম কচি এবং খেলোয়াড় রাব্বি, ইমন, শিকদার, আশিক, শিমুল, দীপন, তামিম আহত হন। 

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘‘এমন অনাকাঙ্খিত ঘটনায় আমরা লজ্জিত। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আহতদের চিকিৎসা খরচ বহন করবে। এছাড়া হামলার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’