• সোমবার, আগস্ট ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪২ সকাল

সাদা কাপড়ে আবৃত ‘ইস্পাতের কান্না’র দুই নারী

  • প্রকাশিত ০৮:১২ রাত এপ্রিল ১৭, ২০১৯
ইস্পাতের কান্না
সাদা কাপড়ে আবৃত 'ইস্পাতের কান্না'। ছবি- সংগৃহীত

কে বা কারা কাজটি করেছে তা জানা না গেলেও ভাস্কর্যটি আবৃত করে দেওয়ার কারণ কী হতে পারে তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য আসছে

রাজধানীর ধানমন্ডি ২৭ নম্বর সড়কের সামনে রিকশার চেইন দিয়ে বানানো ‘ইস্পাতের কান্না’ ভাস্কর্যের রিকশায় বসা চুল খোলা দুই নারীর মাথা থেকে শরীরের ওপরের অংশ সাদা কাপড়ে আবৃত করে দিয়েছে কেউ। রিকশাচালকের হাতের সামনে বাঁশ এমনভাবে কেটে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে যে দেখে মনে হয় বর্শা। 

'ইস্পাতের কান্না' ভাস্কর্যটির নির্মাতা মৃণাল হক। ভাস্কর্যটির আশপাশের চা বিক্রেতা, নিরাপত্তাকর্মী, পথচারীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সাদা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখার বিষয়টি গতকালই তাদের চোখে পড়ে। সংস্কারকাজের জন্য কোনো সাইনবোর্ড না থাকায় সবার মধ্যেই একধরনের প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।

তবে ভাস্কর্যটি আবৃত করে দেওয়ার কারণ কী হতে পারে তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য আসছে। কেউ কেউ মনে করছেন, সাম্প্রতিক সময়ে ফেনীর নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনাসহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে একের পর এক যৌন নির্যাতনের ভয়াবহ সব ঘটনার প্রতিবাদে ভাস্কর্যটিকে কেউ ঢেকে দিয়েছে। আবার কেউ কেউ মনে করছেন হয়তো উগ্র মৌলবাদী গোষ্ঠীর কেউ ভাস্কর্যটিকে 'পর্দা' করানোর উদ্দেশ্যে এ কাজটি করেছে। 

বিভিন্ন দেশে প্রতিবাদী শিল্পের ভাষা হিসেবে গণপরিসরে স্থাপিত ভাস্কর্য নিয়ে এ ধরনের স্থাপনাশিল্প রচনার প্রচলন আছে। ভাস্কর্যটিতে নতুন মাত্রা যোগ হওয়ায় এটি যেন হয়ে উঠেছে এক নতুন স্থাপনাশিল্প। তবে কে বা কারা এবং কী উদ্দেশ্যে এ কাজ করেছে তা জানা যায়নি।