• বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:১২ রাত

মোবাইল কোম্পানিগুলোর কাছে সরকারের পাওনা ১৫ হাজার কোটি টাকা

  • প্রকাশিত ০৯:৪২ রাত এপ্রিল ২৮, ২০১৯
মোবাইল অপারেটর

রবিবার জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগের সদস্য বেনজির আহমদের এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার

মোবাইল কোম্পানিগুলোর কাছে রাজস্ব বাবদ ১৫ হাজার ১শ ৬০ কোটি টাকা সরকারের পাওনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তফা জব্বার।

রবিবার জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগের সদস্য বেনজির আহমদের এক প্রশ্নের লিখিত উত্তরে মন্ত্রী এ তথ্য জানান। 

সংসদে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী বলেন, "মোবাইল কোম্পানিগুলোর কাছে রাজস্ব বাবদ ১৫ হাজার ১শ ৬০ কোটি টাকা সরকারের পাওনা রয়েছে। এই বকেয়া আদায়ে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে"।

মোস্তফা জব্বার আরও বলেন, "বর্তমানে দেশের মোবাইল কোম্পানিগুলোর মধ্যে প্যাসিফিক বাংলাদেশ টেলিকম লি. (সিটিসেল) এর কাছে সরকারের ১২৮ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। বকেয়া থাকার কারণে বিটিআরসির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটির অপারেশন কার্যক্রম বন্ধ করা হয়েছে এবং বকেয়া রাজস্ব আদায়ের জন্য বিটিআরসির মাধ্যমে এই সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সুপ্রিমকোর্টে একাধিক মামলা দায়ের করা হয়েছে"।  

"বিটিআরসির মাধ্যমে সরকারি রাজস্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে মোবাইল কোম্পানিগুলো নিয়মিত অডিট করা হয়। ইতোমধ্যে গ্রামীণফোন লি. ও রবি আজিয়াটার অডিট কার্যক্রম শেষ হয়েছে। গ্রামীণফোনের কাছে ৮ হাজার ৪৯৪.০১ কোটি টাকা (বিটিআরসি) এবং এনবিআর-এর ৪ হাজার ৮৫.৯৪ কোটি টাকাসহ মোট অডিট আপত্তির পরিমাণ ১২ হাজার ৫৭৯.৯৫ কোটি টাকা এবং রবি আজিয়াটার কাছে বিটিআরসির ৬শ ৭৭.৭৬ কোটি টাকা এবং এনবিআরের ১শ ৮৯.৪৭ কোটি টাকাসহ মোট অডিট আপত্তির পরিমাণ ৮শ ৬৭.২৩ কোটি টাকা", জানান মোস্তাফা জব্বার 

অডিট আপত্তি করা অর্থ পরিশোধের জন্য প্রতিষ্ঠান দু’টিকে ইতোমধ্যে চিঠি দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী।

এছাড়াও বাংলালিংক কমিউনিকেশন লি. ও এয়ারটেল বাংলাদেশ লি. মোবাইল অপারেটর দু’টির অডিট কার্যক্রম শুরুর লক্ষ্যে অডিটর নিয়োগের বিষয়টিও প্রকিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।