• বুধবার, জুন ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪১ দুপুর

সেলফি তোলার সময় ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক আটক

  • প্রকাশিত ০৪:৩৮ বিকেল মে ২, ২০১৯
অভিযুক্ত শিক্ষক
যৌন হয়রানির অভিযোগে আটক শিক্ষক মিরাজ হোসেন মোল্লা। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

বুধবার দুপুরে ওই বিদ্যালয় থেকে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে পুলিশ

গোপালগঞ্জে স্কুলের শ্রেণিকক্ষে একটি জন্মদিনের অনুষ্ঠানে সেলফি তোলার সময় এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে এক শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক মিরাজ হোসেন মোল্লাকে সাময়িক ভাবে বহিষ্কার করেছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

গত ২৪ এপ্রিল গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার করপাড়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন গোপালগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম। বুধবার দুপুরে ওই বিদ্যালয় থেকে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে পুলিশ।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ এপ্রিল স্কুলের সহকারী শিক্ষক পরিমল বিশ্বাসের জন্মদিন উপলক্ষ্যে বিদ্যালয়ের একটি শ্রেণিকক্ষে কেক কাটা হয়। কেক কাটা শেষে ছাত্রীদের সাথে সেলফি তোলার সময় ওই স্কুলের সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করেন ওই স্কুলের আরেক সহকারী শিক্ষক মিরাজ হোসেন মোল্লা।

ঘটনার পরের দিন ওই ছাত্রীর পরিবার বিষয়টি স্কুল কর্তৃপক্ষকে মৌখিকভাবে জানায়। তবে স্কুল কর্তৃপক্ষ কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবর গত ২৮ এপ্রিল লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই ছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা।

লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত বুধবার স্কুল প্রাঙ্গণে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির এক বৈঠকে অভিযুক্ত শিক্ষককে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়। এসময় ওই স্কুল থেকেই অভিযুক্ত শিক্ষক মিরাজ হোসেন মোল্লাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ওসি মো. মনিরুল ইসলাম ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক মিরাজ হোসেন মোল্লাকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।