• বৃহস্পতিবার, জুন ২৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৬ সকাল

খাদ্যমন্ত্রী: খাদ্যে ভেজাল রোধে প্রয়োজনে মৃত্যুদণ্ডের বিধান

  • প্রকাশিত ০৬:১৩ সন্ধ্যা মে ১২, ২০১৯
খাদ্যমন্ত্রী
সুসজ্জিত মোবাইল ভ্যানের মাধ্যমে ঢাকা মহানগরীতে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত সংক্রান্ত প্রচার-প্রচারণার উদ্বোধন করেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। ছবি: ফোকাস বাংলা।

রবিবার সুসজ্জিত মোবাইল ভ্যানের মাধ্যমে ঢাকা মহানগরীতে নিরাপদ খাদ্য সংক্রান্ত প্রচার-প্রচারণার উদ্বোধন করেন খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে প্রয়োজনে নিরাপদ খাদ্য আইন সংশোধন করে শাস্তির মাত্রা বাড়িয়ে যাবজ্জীবন বা মৃত্যুদণ্ডের বিধান করা হবে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

রবিবার সচিবালয়ের সামনে রমজান উপলক্ষে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সুসজ্জিত মোবাইল ভ্যানের মাধ্যমে ঢাকা মহানগরীতে প্রচার-প্রচারণার উদ্বোধন শেষে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, "খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে প্রচলিত আইনে শাস্তির যে বিধান রয়েছে দরকার হলে আইন সংশোধন করে তার মাত্রা বাড়ানো হবে। দরকার হলে শাস্তির মাত্রা বাড়িয়ে যাবজ্জীবন বা মৃত্যুদন্ড করা হবে"। 

সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, "খাদ্যে যারা ভেজাল মেশায় তাদের বিরুদ্ধে বর্তমান সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। শুধু রমজান মাসেই নয়, আমরা চাই ১২ মাসই জনগণ নিরাপদ খাদ্য পাবে। যারা খাবারে ভেজাল দেয় তারা সমাজের শক্র, মানবতার শক্র"।

রমজান মাসে ভেজালবিরোধী অভিযানে নিয়মিতভাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হচ্ছে জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, প্রয়োজনে মোবাইল কোর্টের সংখ্যা বাড়ানো হবে।

এসময় খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে জনসচেতনতার গুরুত্ব তুলে ধরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, "খাদ্যে ভেজালের বিষয়ে আমাদের নিজেদের মধ্যে আরও সচেতনতা বাড়ানো জরুরি। খাদ্যে ভেজালকারীদের বিরুদ্ধে সবাই মিলে একযোগে, এক হয়ে কাজ করে এটিকে সামাজিক আন্দোলনে রূপান্তরিত করতে হবে। আতঙ্কিত না হয়ে ভেজাল প্রতিরোধে নিজেরা যদি আরও সোচ্চার হই তাহলে ভেজালমুক্ত নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করা সম্ভব"।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মাহফুযুল হক, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব একে আজাদ প্রমুখ।