• সোমবার, আগস্ট ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৮ রাত

গণধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে ফের ধর্ষণের চেষ্টা

  • প্রকাশিত ০৮:২৪ রাত মে ১৬, ২০১৯
নির্যাতন
প্রতীকী ছবি

ধারণকৃত ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোষ্ট করার হুমকি দিয়ে ওই নারীকে ফের ধর্ষণের চেষ্টা চালায় অভিযুক্তরা

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের ভিডিওচিত্র ধারণ করে ফের ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আক্তার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।  

বৃহস্পতিবার দুপুরে ভুক্তভোগী গৃহবধূ বাদি হয়ে চার ব্যক্তিকে আসামি করে আড়াইহাজার থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- স্থানীয় গাজীপুরা এলাকার ছায়েদ আলীর ছেলে সেলিম, মোঃ ছালামের ছেলে নাঈমউদ্দিন, কফিল উদ্দিনের ছেলে সোহেল, নিজামউদ্দিনের ছেলে আবুল।

মামলা এজাহার সূত্রে জানা যায়, "র্দীঘদিন ধরে অভিযুক্ত চার ব্যক্তি ভুক্তভোগী গৃহবধূকে মোবাইলে কু-প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করতো। গত ৬ মে সন্ধ্যায় ঐ গৃহবধূ খাবার কিনতে বাড়ির থেকে বের হলে অভিযুক্ত সেলিম কাপড় দিয়ে তার হাত বেঁধে মুখ চেপে ধরে বাড়ির পাশের একটি পুকুর পাড়ে নিয়ে গিয়ে তার উপর নির্যাতন চালায়। এসময় সেলিমের সাথে ছিল আবুল এবং সোহেল। মামলার অপর অভিযুক্ত নাঈমউদ্দিন এসময় মোবাইলে পুরো ঘটনার ভিডিও ধারণ করছিল।   

ভুক্তভোগী ঐ গৃহবধূ জানান, সামাজিক লোকলজ্জার ভয়ে বিষয়টি পরিবারের লোকজনের কাছে এতদিন তিনি গোপন রেখেছিলেন। তবে অভিযুক্তরা ধারণকৃত ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোষ্ট করার হুমকি দিয়ে তাকে ফের ধর্ষণের চেষ্টা চালালে বিষয়টি তিনি পরিবারকে জানান।

এ প্রসঙ্গে ভুক্তভোগী ওই নারী ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "এ নিয়ে এলাকায় বিচার-সালিশ করতে চাইলে স্থানীয় প্রভাবশালীরা ধর্ষকদের পক্ষ নিয়ে উল্টো আমার ওপর অপবাদ দিতে থাকে। কোন বিচার না পেয়ে আমি অবশেষে আমি আইনের আশ্রয় নিতে বাধ্য হই"।

ওসি আক্তার হোসেন এ প্রসঙ্গে বলেন, "এ ঘটনায় ভুক্তভোগী গৃহবধূ থানায় মামলায় দায়ের করেছেন। অভিযুক্তদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে"।