• সোমবার, অক্টোবর ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:১৮ দুপুর

৬ মাসের শিশুর মাকে ‘পিটিয়ে হত্যা’, স্বামী পলাতক

  • প্রকাশিত ০৩:১০ বিকেল মে ১৭, ২০১৯
সাতক্ষীরা

শুক্রবার ভোরে মারপিটের এক পর্যায়ে সুমাইয়ার মৃত্যু হয়। এ সময় গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সুমাইয়ার নিথর দেহ ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে রেখে প্রতিবেশিদের ডেকে আনে সাকিব।

সাতক্ষীরা শহরের কামালনগরে ৬ মাস বয়সী একটি শিশুর মাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তারই স্বামীর বিরুদ্ধে। 

১৭ মে, শুক্রবার ভোরে এ ঘটনাটি ঘটে। পরে নিহত স্ত্রীর লাশ জেলা সদর হাসপাতালে রেখে পালিয়ে গেছেন স্বামী।

নিহতের নাম সুমাইয়া খাতুন (১৯)। তিনি শহরের কামালনগর এলাকার সাকিব হোসেনের স্ত্রী ও আশাশুনি উপজেলা কাদাকাটি গ্রামের মঞ্জুরুল সরদারের মেয়ে। 

নিহতের খালা ফাতেমাতুজ জোহরা জানান, দেড় বছর আগে তার বোনের মেয়ে সুমাইয়া খাতুনের সাথে বিয়ে হয়েছিল শহরের কামালনগর এলাকার সাকিব হোসেনের। 

ফাতেমাতুজ জোহরার অভিযোগ, বিয়ের পর থেকে সাকিব প্রায়ই তার স্ত্রীকে মারপিট করতো। শুক্রবার ভোরে মারপিটের এক পর্যায়ে সুমাইয়ার মৃত্যু হয়। এ সময় গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সুমাইয়ার নিথর দেহ ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে রেখে প্রতিবেশিদের ডেকে আনে সাকিব। পরে সুমাইয়াকে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। 

এরমধ্যে সাকিব তার শ্বশুর বাড়িতে ফোন করে সুমাইয়ার আত্মহত্যার খবর জানিয়ে হাসপাতালে লাশ রেখেই পালিয়ে যান। 

সাতক্ষীরা সদর থানার এস আই কিশোর কুমার বিশ্বাস বলেন, “নিহতের লাশ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো করা হয়েছে।”