• রবিবার, জুন ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:২৬ রাত

জোর করে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে ইউপি সদস্যের চাঁদা আদায়

  • প্রকাশিত ০৫:৩১ সন্ধ্যা মে ২৩, ২০১৯
আটক আনোয়ার হোসেন
জোর করে কিশোর-কিশোরীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা আদায়ের অভিযোগে আটক ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেন। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

এ ঘটনায় অভিযুক্ত ইউপি সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ

কুমিল্লার চান্দিনায় জোর করে কিশোর-কিশোরীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা আদায়ের অভিযোগে আনোয়ার হোসেন নামে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) এক  সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার চান্দিনা পশ্চিম বাজার এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক আনোয়ার চান্দিনা উপজেলার দোবারিয়া গ্রামের আলী আকবরের ছেলে এবং বাড়েরা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ১০ অক্টোবর রাতে ভুক্তভোগী কলেজ শিক্ষার্থী এবং তার স্কুলপড়ুয়া প্রেমিকাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ওই দুই তাদের আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে আনোয়ারসহ সাত ব্যক্তি।

পরবর্তীতে ধারণকৃত ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ভুক্তভোগী কিশোর-কিশোরীর পরিবারের কাছ থেকে ৮০ হাজার টাকা চাঁদা আদায় করে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য। এরপর দীর্ঘদিন বিষয়টি ধামাচাপা থাকে।

সম্প্রতি, আবারও ওই দুই পরিবারের কাছে চাঁদা দাবি করে আনোয়ার। তবে, এবার চাঁদা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় জোর করে ধারণ করা ভিডিওটি ছড়াতে শুরু করে চক্রটি। 

এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবুল ফয়সল ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "ভূক্তভোগীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ধারণকৃত ভিডিওসহ অভিযুক্ত ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেনকে আটক করা। পর্নোগ্রাফি আইনে ওই ওয়ার্ড মেম্বারসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে"।