• রবিবার, জুন ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:২৬ রাত

মালয়েশিয়ার পাম বাগানে বাংলাদেশির লাশ

  • প্রকাশিত ০৯:৪৯ সকাল মে ৩০, ২০১৯
প্রবাসী
রিপন হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

হাইকমিশন সুনজর দিলে তার মৃতদেহ দ্রুত দেশে আনা যেতে পারে। লাশ দেশে আনার জন্য যে খরচ, তার সামর্থ্য রিপনের পরিবারের নেই।

মালয়েশিয়ায় রিপন হোসেন (৪২) নামে এক বাংলাদেশি শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। 

রিপন যশোরের চৌগাছা উপজেলার স্বরূপদাহ ইউনিয়নের খড়িঞ্চা স্কুলপাড়া গ্রামের ইছাহক আলী মাস্টারের ছেলে।

নিহতের চাচাতো ভাই আমিনুর রহমান জানান,স্থানীয় সময় গত ২৭ মে, সোমবার রাতে মালয়েশিয়ার একটি পামবাগান থেকে রিপনের লাশ উদ্ধার করা হয়।  

তিনি জানান,রিপন পাঁচভাই তিন বোনের মধ্যে সবার বড়।  এক সন্তানের বাবা রিপন চৌগাছা বাজারে স্বর্ণের কারিগরের কাজ করতেন। পরিবারে স্বচ্ছলতার আশায় ধার-দেনা করে দু’বছর আগে তিনি মালয়েশিয়া যান।  তবে সেখানে তার বৈধ কাগজপত্র হয়নি। 

আমিনুর রহমান বলেন, “ইতোমধ্যে তার নাগরিকত্ব সনদপত্রসহ আনুষঙ্গিক কাগজপত্র মালয়েশিয়ান হাইকমিশনে জমা দেওয়া হয়েছে।  হাইকমিশন সুনজর দিলে তার মৃতদেহ দ্রুত দেশে আনা যেতে পারে। লাশ দেশে আনার জন্য যে খরচ, তার সামর্থ্য রিপনের পরিবারের নেই।” 

নিহতের বাবা ইছাহক আলী মাস্টার গুরুতর অসুস্থ।  তিনি জানান, ছেলে ভাগ্যের পরিবর্তনে মালয়েশিয়া গিয়েছিল।  এখন তার মৃত্যু হয়েছে, কীভাবে তার মরদেহ দেশে আনা যাবে- সে ব্যাপারে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি। 

জানতে চাইলে স্বরূপদাহ ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া এ প্রতিনিধিকে বলেন, “আমি শুনেছি পাম বাগানে রাতে দুর্ঘটনায় রিপন মারা যান।  তার মরদেহ দেশে আনার ব্যাপারে পরিবার থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে কি না জানি না।”