• সোমবার, জুন ২৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৩৭ সন্ধ্যা

‘ঋণের দায়ে’ কৃষকের আত্মহত্যা

  • প্রকাশিত ০২:০৮ দুপুর জুন ৭, ২০১৯
আত্মহত্যা
প্রতীকী ছবি

ঋণের বেশ কিছু টাকা পরিশোধের জন্য গত ক’দিন আগে তিনি একটি অটোরিকশা ও একটি গরু বিক্রি করেন। কিন্তু, ঋণের পরিমাণ বেশি হওয়ায় পুরোপুরি শোধ করতে পারেননি।

ঋণের দায়ে সিরাজগঞ্জের তাড়াশে এক কৃষক আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। নিহত ওই কৃষকের নাম রহিচ উদ্দিন (৪০)। তিনি বারুহাস ইউনিয়নের বস্তুল গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে।

৬ জুন, বৃহস্পতিবার খবর পেয়ে তাড়াশ থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার নিহতের লাশ উদ্ধার করে জেলা সদরের হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ইউডি মামলার পর ময়নাতদন্ত শেষে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ। খবর বাংলা ট্রিবিউনের। 

পরিবারের সদস্যদের দাবি, ঋণের দায়ে সামাজিক ও পারিবারিকভাবে বিপর্যস্ত রহিচ ঈদের দিন বিকালে ওষুধ খেয়ে নিজ বাড়িতে আত্মহত্যা করেন।

তাড়াশ থানার এসআই ফরিদ আহম্মেদ নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসীর উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, ঋণগ্রস্ত কৃষক রহিচ উদ্দিন বেশ কিছুদিন ধরেই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন। এরই জেরে ঈদের দিন বিকালে তিনি নিজ বাড়িতে আত্মহত্যা করেন। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ স্বজনদের কাছে দেওয়া হয়েছে।

বারুহাস ইউপি চেয়ারম্যান মোক্তার হোসেন জানান, ঋণের বেশ কিছু টাকা পরিশোধের জন্য গত ক’দিন আগে তিনি একটি অটোরিকশা ও একটি গরু বিক্রি করেন। কিন্তু, ঋণের পরিমাণ বেশি হওয়ায় পুরোপুরি শোধ করতে পারেননি। এ নিয়ে পারিবারিক ও স্থানীয়ভাবে দ্বন্দ্ব তৈরি হওয়ায় ক্ষোভের কারণে সে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন বলে শুনেছি।