• সোমবার, অক্টোবর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৫:৫৩ সন্ধ্যা

পপুলারের চিকিৎসকের বিরুদ্ধে রোগীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

  • প্রকাশিত ১০:৫৯ রাত জুন ১৬, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

এ ছাড়া ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই নারী শিক্ষার্থী বাইরে বের হওয়ার সময় চিকিৎসক তার গালের ইনফেকশন দেখতে চান। ইনফেকশন দেখার ছলে ডাক্তার ওই তরুণীর গালে চুমু খান।

রাজধানীর ধানমন্ডির পপুলার হাসপাতালের চর্মরোগ ও যৌনরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মো. শওকত হায়দারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছেন। এ ব্যাপারে তিনি হাসপাতালের কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে।

১৫ জুন, শনিবার দুপুরে ধানমন্ডি ১ নম্বরের পপুলার হাসপাতালে এ যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী তরুণী পপুলার হাসপাতালের মানবসম্পদ ও প্রশাসন বিভাগের প্রধান অচিন্ত্যকুমার নাগের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। খবর  বাংলা ট্রিবিউনের। 

অভিযোগ থেকে জানা যায়, শনিবার ডা. শওকতকে দেখাতে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে যান ওই তরুণী। চিকিৎসক তাকে ফোন করে জানান, তিনি পপুলারে নেই, পাশের সিটি ব্যাংক ভবনের লিফটের ২-এ আছেন। সেখানে যাওয়ার পর চিকিৎসক তরুণীকে ইনজেকশন দেওয়ার সময় আপত্তিকর আচরণ করেন। শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেওয়ার চেষ্টা করেন। তরুণী নিজেকে নিজেকে ছাড়িয়ে নেন। বাইরে বের হওয়ার সময় চিকিৎসক তার গালের ইনফেকশন দেখতে চান। ইনফেকশন দেখার ছলে ডাক্তার ওই তরুণীর গালে চুমু খান।

এরপর তরুণী বাসায় গিয়ে বোনকে সব বলেন। চিকিৎসকে ফোন দেওয়া হলে তিনি ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।

পপুলার হাসপাতালের মানবসম্পদ ও প্রশাসন বিভাগের প্রধান অচিন্ত্যকুমার নাগ বলেন, “আমরা অভিযোগ পেয়েছি। চিকিৎসককে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। তিনি অস্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”