• সোমবার, অক্টোবর ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:১৮ দুপুর

‘সব কিছুতেই প্রধানমন্ত্রীকে হস্তক্ষেপ করতে হয়, তাহলে সচিবরা কেন আছেন?’

  • প্রকাশিত ০৩:৫৭ বিকেল জুন ১৮, ২০১৯
হাইকোর্ট
ফাইল ছবি। ঢাকা ট্রিবিউন

‘আড়ংয়ে অভিযান পরিচালনাকারী ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের উপপরিচালক মোহাম্মদ শাহরিয়ারকে বন্ধের দিনে যেভাবে বদলি করা হয়েছে সেটা লজ্জার। যারা বদলি করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।’

আড়ংয়ে অভিযান পরিচালনাকারী ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণেরউপপরিচালককে বন্ধের দিনে যেভাবে বদলি করা হয়েছে সেটা লজ্জাজনক বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেন, “বন্ধের মধ্যে ওই কর্মকর্তাকে বদলির আদেশ স্থগিতে প্রধানমন্ত্রীকে হস্তক্ষেপ করতে হয়েছে। যদি সব কিছুতেই প্রধানমন্ত্রীকে হস্তক্ষেপ করতে হয়, তাহলে সচিবরা কেন আছেন? তারা কী ওদের পকেটে ঢুকে গেছেন?”

‘ঢাকায় ৯৩ শতাংশ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ’ রাখার অভিযোগে ওইসব ওষুধ বিক্রি বন্ধ ও প্রত্যাহার চেয়ে করা রিটের শুনানিতে প্রসঙ্গক্রমে ১৮ জুন, মঙ্গলবার বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন। খবর বাংলা ট্রিবিউনের।

এ সময় আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এবিএম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

শুনানিতে আড়ং ইস্যুতে আদালত বলেন, “আড়ংয়ে অভিযান পরিচালনাকারী ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের উপপরিচালক মোহাম্মদ শাহরিয়ারকে বন্ধের দিনে যেভাবে বদলি করা হয়েছে সেটা লজ্জার। যারা বদলি করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এ ধরনের বদলির ফলে যারা সৎ অফিসার, তারা কাজ করতে নিরুৎসাহিত হন।”

প্রসঙ্গত, রোজার মাসের শেষ দিকে আড়ংয়ের উত্তরা শাখায় অভিযান পরিচালনা করেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের কর্মকর্তা মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। পরে তাকে তাৎক্ষণিক বদলির অভিযোগ ওঠে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা ওঠে। পরে তার বদলি স্থগিত করা হয়।