• শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৫২ রাত

ঢাকার তরুণী টাঙ্গাইলে, বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন

  • প্রকাশিত ০৭:০৫ রাত জুন ১৯, ২০১৯
প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন
প্রতীকী ছবি।

জসীম উদ্দিন দেশে ফিরেই ওই তরুণীর ঢাকার ভাড়া বাসায় ওঠেন। পরে গত ঈদুল ফিতরের আগের দিন জসীম সখীপুরের বাড়িতে ফিরে যান এবং ওই তরুণীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন।

টাঙ্গাইলের সখীপুরে বিয়ের দাবিতে তিনদিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন এক তরুণী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্কের জেরধরেই ওই তরুণী এ অনশন করছেন বলে জানা গেছে। তবে ওই তরুণী বাড়িতে ওঠার পর প্রেমিক জসিম উদ্দিন তার মা ও ভাইবোনসহ বাড়িতে তালা লাগিয়ে সটকে পড়েছেন। 

গত ১৭ জুন, সোমবার দুপুরে ওই তরুণী উপজেলার পাথারপুর গ্রামের আলম মিয়ার ছেলে প্রবাসী জসিম উদ্দিনের বাড়িতে ওঠেন। এর আগে গত সোমবার সকালে প্রেমিক জসিম উদ্দিন ওই তরুণীর হাত থেকে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সখীপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। জসীম উদ্দিন জিডিতে উল্লেখ করেন, ওই তরুণী মুঠোফোনে বিয়ের দাবিতে বাড়িতে উঠার হুমকি দেয় ও পাঁচ লাখ টাকা দাবি করছে।

জানা যায়, জসীম উদ্দিন দুই বছর আগে মালদ্বীপ গিয়েছিলেন। পরে রাজধানী ঢাকার ওই তরুণীর সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ২৫ মে জসীম উদ্দিন দেশে ফিরেই ওই তরুণীর ঢাকার ভাড়া বাসায় ওঠেন। পরে গত ঈদুল ফিতরের আগের দিন জসীম সখীপুরের বাড়িতে ফিরে যান এবং ওই তরুণীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। 

ওই অনশনরত তরুণী বলেন, “জসিম উদ্দিন আগে একটি বিয়ে করে বউকে তালাক দিয়েছে। অন্যদিকে আমিও আমার আগের স্বামীকে তালাক দিয়েছি। আমি বাধ্য হয়েই আমার অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য এ বাড়িতে উঠেছি।”

স্থানীয় গজারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান মিঞা বলেন, “জসিমসহ তার পরিবারের লোকজন পালিয়ে যাওয়ার কারণে এ ঘটনার মীমাংসা শিগগিরই হচ্ছে না। জসিমকে পেলেই এ বিষয়ে সমাধান করা হবে।”

সখীপুর থানার ওসি আমির হোসেন জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, “মেয়েটি থানায় অভিযোগ করলেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”