• বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:০০ বিকেল

বগিচ্যুত হওয়ার পরেও এক কিলোমিটার চালানো হয়েছিল ট্রেনটি!

  • প্রকাশিত ০৩:৩০ রাত জুন ২৪, ২০১৯
কুলাউড়া ট্রেন
মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেন। ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

এক পর্যায়ে যাত্রীদের আর্তচিৎকারে এক কিলোমিটার দূরে গিয়ে ট্রেনটি থামানো হয়।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় সিলেট থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর ট্রেন উপবন এক্সপ্রেস ব্রিজ ভেঙে খাদে পড়ে এখন পর্যন্ত পাঁচ জন  নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত আড়াইশ’ মানুষ। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

রবিবার (২৩ জুন) রাত সাড়ে ১০টার দিকে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ব্রিজ ভেঙে ট্রেনের পেছনের ৫টি বগি ছিটকে নিচে পড়ে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে ঢাকা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে স্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার উদয় কুশল সিংহ।

এদিকে, পাঁচটি বগি লাইনচ্যুত হওয়ার পরেও ট্রেনটিকে দুর্ঘটনাস্থল থেকে এক কিলোমিটার চালিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।


আরও পড়ুন- কুলাউড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনা: নিহত ৬, আহত আড়াই শতাধিক


কুলাউড়ায় রেলের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, রাত ১১টা ৫০ মিনিটের দিকে ট্রেনটি কুলাউড়ার বরমচাল স্টেশন সংলগ্ন বড়ছড়া ব্রীজ অতিক্রমের সময় ট্রেন থেকে ৫টি বগি ছিটকে পড়ে। এর মধ্যে একটি বগি ব্রীজের নিচে পড়ে যায়। বাকি বগিগুলো ব্রীজের পাশে কাত হয়ে পড়ে। জরুরি ভিত্তিতে সেখানে দমকল বাহিনীকে তলব করা হয়। বেশ কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্সও ঘটনাস্থলে জড়ো করা হয়। অ্যাম্বুলেন্সযোগে হতাহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। 

রাতে দুর্ঘটনা কবলিত ট্রেনটিকে বিকল্প উপায়ে কুলাউড়ায় নিয়ে আসার প্রস্তুতি চালানো হয় বলে আরও জানায় সূত্রটি।

মৌলভীবাজার পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ট্রেনের ৫টি বগি লাইনচ্যুত হওয়ার পর চালক ট্রেনটি চালিয়ে যেতে থাকেন। এক পর্যায়ে যাত্রীদের আর্তচিৎকারে এক কিলোমিটার দূরে গিয়ে ট্রেনটি থামানো হয়।