• শুক্রবার, আগস্ট ২৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫১ রাত

পুলিশে চাকরি দেওয়ার নাম করে সাবেক আনসার সদস্যের প্রতারণা!

  • প্রকাশিত ০৮:৫৮ রাত জুন ২৫, ২০১৯
বগুড়া প্রতারক
পুলিশে চাকরি দেওয়ার নাম করে টাকা নেওয়ায় দুলু নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে বগুড়া ডিবি পুলিশ ঢাকা ট্রিবিউন

পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে এক তরুণীকে পুলিশ কনস্টেবলের চাকরি দিতে সাত লাখ টাকার চুক্তি করেন তিনি।

বগুড়ায় এক তরুণীকে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে জুলহাস উদ্দিন দুলু (৪৮) নামে সাবেক এক আনসার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

মঙ্গলবার (২৫ জুন) বিকেলে শহরতলীর কৈচড় গ্রাম থেকে ওই প্রতারককে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়েছে ডিবি পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বগুড়া ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর আসলাম আলী ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, সাবেক আনসার সদস্য জুলহাস উদ্দিন দুলু গাইবান্ধার পলাশবাড়ি উপজেলার কালুগাড়ি গ্রামের বাসিন্দা। কৈচড় মধ্যপাড়ার আজিজুল বারী জিন্নাহর মেয়ে জিনিয়া আকতার বর্ষা আগামী ৩ জুলাই পুলিশ কনস্টেবল পদে বগুড়া পুলিশ লাইন্সে পরীক্ষা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। বিষয়টি জানতে পেরে পূর্ব পরিচিত দুলু তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে বর্ষাকে পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার বিনিময়ে সাত লাখ টাকার চুক্তি করেন। 

সোমবার দুপুরে বর্ষার চাকরি বিষয়টি চূড়ান্ত হয়েছে জানিয়ে ৫০ হাজার টাকা এবং কাগজপত্রের ফটোকপি চান দুলু। তার কথায় বিশ্বাস করে টাকা ও কাগজপত্র দেয় পরিবারটি।

এরপর তারা জানতে পারেন, বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা ঘোষণা দিয়েছেন, কোনো ধরনের ঘুষ বা তদবির ছাড়াই শুধুমাত্র সরকারি ফি'র মাধ্যমে পুলিশে চাকরি পাওয়া যাবে। পরে পুরো বিষয়টি তারা পুলিশকে জানায়। 

মঙ্গলবার বিকেলে ডিবি পুলিশ শহরতলীর কৈচড় গ্রাম থেকে কৌশলে প্রতারক দুলুকে গ্রেপ্তার করে। 

এ ঘটনায় ওই তরুণীর মা সদর থানায় একটি মামলা করেন। পরে পুলিশ আদালতের মাধ্যমে দুলুকে বগুড়া জেল হাজতে পাঠায়।

উল্লেখ্য, কোনো ধরনের ঘুষ ছাড়াই পুলিশের কনস্টেবল পদে নিয়োগের বিষয়ে সম্প্রতি উদ্যোগ নিয়েছেন বগুড়ার পুলিশ সুপার। পোস্টারিংসহ বিভিন্ন উপায়ে এ বিষয়ে জনগণকে সচেতন করছেন। এর আগেও পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নাম করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে দু'জনকে গ্রেপ্তার করেছে বগুড়া পুলিশ।