• মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:৩১ দুপুর

৬ লাখ টাকা দেনমোহরে ধর্ষিতার সাথে ধর্ষকের বিয়ে

  • প্রকাশিত ১০:৩৯ রাত জুন ২৭, ২০১৯
বিয়ে

গত ২০ জুন বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ এনে জসিমসহ সাত জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন ওই নারী

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ৬ লাখ টাকা দেনমোহরে ধর্ষিতার সাথে ধর্ষকের বিয়ের ঘটনা ঘটেছে। গত ২১ জুন রাতে উপজেলার পাথারপুর জসিম উদ্দিনের (২৫) সাথে ওই নির্যাতিতা নারীর বিয়ে সম্পন্ন হয়।

এ ব্যাপারে ওই নারী জানান, "মামলা নয় আমি জসিমকে বিয়ে করে ঘর সংসার করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু জসিম ও তার পরিবার রাজী না হওয়ায় আমাকে মামলার আশ্রয় নিতে হয়। মামলার পর জসিম বিয়েতে রাজি হওয়ায় পুলিশ, উভয় পরিবারে লোকজন এবং গণ্যমাণ্য ব্যাক্তিবর্গের উপস্থিতিতে আমরা ৬ লাখ টাকা দেনমোহরে বিয়ে করি। এখন মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য পুলিশ ও উকিলের সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে"।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আজগর আলী এ প্রসঙ্গে বলেন, "উভয়পক্ষের লোকজন ও মাতাব্বরদের উপস্থিতিতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমানে মেয়েটি জসিমের বাড়িতে আছে এবং ঘর সংসার করছে"।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) এএইচএম লুৎফুল কবির বলেন, "বিয়ে করার বিষয়টি আমিও শুনেছি। মেয়েটি মামলা নিষ্পত্তির ব্যাপারে থানায় আসলে আইনি প্রক্রিয়াই মামলা শেষ হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে"।

এর আগে গত ২০ জুন বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ এনে জসিমসহ সাত জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন ওই নারী। এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই জসিম উদ্দিনের নানা বৃদ্ধ দুদু মিয়াকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায় পুলিশ।

তবে, পরবর্তীতে ৬ লাখ টাকা দেনমোহরে ধর্ষিতাকে ওই নারীকে বিয়ে করে ঘর সংসার শুরু করে জসিম উদ্দিন। এরপর থেকেই মামলা তুলে নিতে সখীপুর থানার ওসি, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও উকিলের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তিনি।