• রবিবার, জুলাই ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:৪৬ দুপুর

মিরপুর রোড ও প্রগতি সরণিতেও বন্ধ হচ্ছে রিকশা

  • প্রকাশিত ০৯:৩১ রাত জুলাই ৬, ২০১৯
ডিএনসিসি'র সভা
শনিবার ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে গুলশানে ডিএনসিসির নগর ভবনে সভা অনুষ্ঠিত হওয়। ছবি: ফোকাস বাংলা

 এসব সড়কে রিকশা চলাচল বন্ধের এই সিদ্ধান্ত রবিবার থেকে কার্যকর হবে

এবার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) আওতাধীন মিরপুর রোড এবং প্রগতি সরণিতে রিকশা চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

শনিবার ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে গুলশানে ডিএনসিসির নগর ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ‘ঢাকা মহানগরীর অবৈধ যানবাহন বন্ধ, ফুটপাত দখলমুক্ত ও অবৈধ পার্কিং বন্ধে গঠিত কমিটি’র সিদ্ধান্ত অনুসারে ডিএনসিসির এই ঘোষণা।

সভায় জানানো হয়, রবিবার থেকে থেকে প্রগতি সরণির কুড়িল বিশ্বরোড থেকে মালিবাগ এবং মিরপুর রোডের গাবতলী থেকে ধানমন্ডি-২৭ নম্বর পর্যন্ত রিকশা ও ভ্যান চলাচল নিষিদ্ধ। তবে, এই দু'টি সড়ক ছাড়া অন্য রাস্তায় রিকশা চলাচল আগের মতোই জারি থাকবে। একই সাথে পথচারীদের চলাচল নির্বিঘ্ন করতে সড়ক ও ফুটপাতে থাকা অবৈধ দখল সরিয়ে নিতে বলেছে ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ।

এ প্রসঙ্গে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, "রিকশা নিষিদ্ধ না করে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রধান সড়কগুলোতে যান্ত্রিক যানবাহনের পাশাপাশি রিকশা এবং অন্যান্য অযান্ত্রিক যানবাহন চলাচল করলে দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকে। তবে প্রধান সড়ক ছাড়া অন্যান্য সড়কে রিকশা এবং অন্যান্য অযান্ত্রিক যানবাহন চলতে পারবে।"

এছাড়াও এই দু'টি সড়কে পর্যাপ্ত গণপরিবহন চালু করার জন্য বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সংস্থা (বিআরটিসি) এবং বাস মালিক সমিতির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম।

এসময় তিনি সড়কে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা চালু করার কথাও বলেন। এছাড়াও কুড়িল বিশ্বরোড থেকে মালিবাগ পর্যন্ত নতুন করে চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করার কথা জানান ডিএনসিসি মেয়র।

সভায় ঢাকা ১১ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম রহমতুল্লাহ, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল হাই, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সংস্থা (বিআরটিসি) পরিচালক কর্নেল মাহবুবুর রহমান, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) ট্রাফিকের অতিরিক্ত কমিশনার মফিজ উদ্দিন আহমেদসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।