• মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৮ রাত

রাজধানীর সদরঘাটে ভবনধস, বাবা ছেলে নিখোঁজ

  • প্রকাশিত ০৬:৫২ সন্ধ্যা জুলাই ১৭, ২০১৯
ভবন ধস
ধসে পড়া ভবনে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ছবি: সংগৃহীত

উদ্ধারের সময় পাশের আরেকটি দেয়াল ধসে পড়ে। এ ছাড়া ভবনটির আশপাশে কোনো ফাঁকা জায়গায় নেই, ভবনে যাওয়ার রাস্তাও খুব সরু। ফলে উদ্ধার চালাতে খুবই বেগ পেতে হচ্ছে।

রাজধানীর সদরঘাটের পাটুয়াটুলিতে একটি তিনতলা ভবন ধসে পড়েছে। ধসে পড়া ভবনটির ভেতরে বাবা ও ছেলে আটকা পড়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় অধিবাসীরা।

১৭ জুলাই, বুধবার দুপুরে দেড়টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। খবর বাংলা ট্রিবিউনের।

বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তামোহাম্মদ আলী বলেন, “ধসেপড়া ভবনটি দীর্ঘদিনের পুরনো হওয়ায় উদ্ধার কাজে ঝুঁকি রয়েছে। ফায়ার সার্ভিস ভারী যন্ত্রপাতি নিয়ে সেখানে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে।”

স্থানীয় ব্যবসায়ী মো. সোবহান বলেন, “তিনতলা এই ভবনটি ভোরের দিকে ধসে পড়েছে। দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিয়েছি। এরপর ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা উদ্ধার কাজ চালাচ্ছেন।”

এই ব্যবসায়ী আরও জানান, যে পাশের রুমটি ধসে পড়েছে, সেখানে সদরঘাটের ফল ব্যবসায়ী জাহেদ আলী ও তার ছেলে থাকতেন। তবে, তিনি ছেলের নাম জানাতে পারেননি।

ব্যবসায়ী মো. সোবহান বলেন, “গতকাল (মঙ্গলবার) রাতে ফলের দোকান বন্ধ করার পর সকাল থেকে দোকান বন্ধ ও মোবাইলও বন্ধ। ভবনটি এমনি ঝুঁকিপূর্ণ, তার মধ্যে কয়েকদিনের বৃষ্টিতে আরও খারাপ অবস্থা ছিল।”

সরেজমিনে দেখা গেছে, ভবনটি পুরনো। ভবনের ছাদ নির্মাণ করা হয়েছে চুন-সুরকি দিয়ে। পুরো স্থাপনাটি নির্মাণে কোনো রড ব্যবহার করা হয়নি।

ফায়ার সার্ভিস বলছে, ভবনের একটি রুমের ছাদ ধসে পড়েছে। উদ্ধারের সময় পাশের আরেকটি দেয়াল ধসে পড়ে। এ ছাড়া ভবনটির আশপাশে কোনো ফাঁকা জায়গায় নেই, ভবনে যাওয়ার রাস্তাও খুব সরু। ফলে উদ্ধার চালাতে খুবই বেগ পেতে হচ্ছে। ভবনের নিচে কেউ আটকা পড়েছে কিনা, তার সন্ধানে কাজ চলছে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী বলেন, “আমরা ঝুঁকিপূর্ণভাবে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছি। একটি আলমারি ছিল, সেটা উদ্ধারের সময় ওপর থেকে পড়েছে। সেটা সরানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। আমরা এখনও নিশ্চিত নই, এখানে কেউ চাপা পড়েছেন কিনা। তবে, লোক মুখে শুনেছি দুই জন নিখোঁজ আছেন। জানতে পেরেছি, আজ দুপুরে এটা ধসে পড়েছে।”

তবে ভবনটি মঙ্গলবার রাতে ধসে পড়েছে বলে ধারণা এই ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তার।