• শনিবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৩৮ রাত

শিশুটিকে হত্যার পর মদ খেতে যায় ঘাতক

  • প্রকাশিত ০৭:০৬ রাত জুলাই ১৮, ২০১৯
নেত্রকোনা কাটা মাথা
ছবি: ইউএনবি

মদ খেতে গিয়েই গণপিটুনিতে প্রাণ হারান শিশুর ঘাতক রবিন

নেত্রকোণায় মাথা কেটে শিশু হত্যার ঘটনায় ঘাতক হত্যাকাণ্ডের পর মদ খেতে বেরিয়ে গণপিটুনিতে নিহত হন বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের নিউটাউন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মোহাম্মদ শাহজাহান মিয়া।

নিহত শিশু সজীব (৮) সদর উপজেলার আমতলা গ্রামের রইছ উদ্দিনের ছেলে। গণপিটুনিতে নিহত যুবকের নাম রবিন (২২)।

এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ ব্যক্তিকে আটক করেছে। তবে তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি। এছাড়াও ঘাতকের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন থেকে তথ্য উদ্ধারের চেষ্টা চলছে বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার  দিকে শহরের বারহাট্রা রোড এলাকার হরিজন পল্লীতে যায় ঘাতক রবিন। এসময় তার হাতে একটি ব্যাগ ছিল। তবে, সেখানে মদ না পেয়ে অন্য ঘরে যাওয়ার সময় রবিনের ব্যাগ থেকে রক্ত পড়তে দেখেন হরিজন পল্লীর লোকজন। এসময় ব্যাগে কি আছে তা রবিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। এতে স্থানীয়দের সন্দেহ হলে রবিনের ব্যাগ খুলে শিশুর কাটা মাথা উদ্ধার করেন তারা।


আরও পড়ুন: ব্যাগে শিশুর কাটা মাথা, গণপিটুনিতে যুবক নিহত


এ বিষয়ে এএসপি শাহজাহান মিয়া বলেন, "গণপিটুনিতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় রবিনের। পরে পুলিশ নিহত শিশু সজিবের দেহ কাটলি এলাকার একটি তিনতলা নির্মাণাধীন ভবনের নীচতলা থেকে উদ্ধার করে। শিশুর ছিন্ন মস্তক, দেহ ও যুবকের লাশ উদ্ধার করে নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।"

তিনি আরও জানান, প্রযুক্তি ব্যবহার করে জব্দকৃত ঘাতকের মোবাইল ফোন থেকে তথ্য উদ্ধারে কাজ করছে পুলিশ। থানায় পৃথক দুইটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এর মধ্যে যুবক নিহতের ঘটনায় অজ্ঞাতনামাদের আসামী করা হবে বলে জানান তিনি।