• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৪১ রাত

পাসপোর্ট পাওয়ার চেষ্টা: দালালসহ রোহিঙ্গা তরুণী আটক

  • প্রকাশিত ০৪:৩৯ বিকেল আগস্ট ১, ২০১৯
রোহিঙ্গা ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ছবি: ঢাকা ট্রিবিউন

মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত হয়ে সে কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থাকতো

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে পাসপোর্ট করার চেষ্টাকালে এক রোহিঙ্গা নাগরিক ও দুই দালালকে আটক করেছে পাসপোর্ট অফিস কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) দুপুরে তাদেরকে আটক করা হয়। আটকরা হলেন- রোহিঙ্গা তরুণী তানজিনা আক্তার (১৯) এবং দুই দালাল লিপা বেগম(৩৮) ও মোখলেছ মুন্সি (৫২)।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক মো. জামাল হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে এক রোহিঙ্গা তরুণীকে নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ এলাকার দালাল লিপা বেগম ও কসবা উপজেলার বীনাউটি গ্রামের মোখলেছ মুন্সি। তারা ওই রোহিঙ্গা তরুণীকে নিজেদের মেয়ে সাজিয়ে ভুয়া কাগজপত্র নিয়ে আঞ্চলিক পাসপোর্ট করার জন্য যান।

কথা-বার্তায় অসংলগ্নতা এবং কাগজপত্র যাচাই করে বিভিন্ন অসঙ্গতি পাওয়া গেলে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে ওই তরুণী নিজেকে তানজিনা আক্তার বলে পরিচয় দেয়। তার বাড়ি মিয়ানমারের মুসিনি নয়াপাড়া এলাকায়। মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত হয়ে সে কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থাকতো। দুই দালালের সহায়তায় বাংলাদেশি পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পাসপোর্ট অফিসে যায়। তাদেরকে আটক করার পর পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে পাসপোর্ট অফিস কর্তৃপক্ষ।