• মঙ্গলবার, আগস্ট ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:২৩ দুপুর

৫ টাকা চাঁদা দেয়ায় ব্যবসায়ীর মাথা ফাটালেন হিজড়ারা

  • প্রকাশিত ০৪:৩৫ বিকেল আগস্ট ৪, ২০১৯
নাটোর
নাটোর

শনিবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটে 

নাটোরে আসন্ন ঈদুল আযহা উপলক্ষে চাহিদামতো চাঁদা না দেওয়ায় এক ব্যবসায়ীকে মারধর আহত করেছে হিজড়াদের একটি দল। শনিবার (০৩ আগস্ট) দুপুরে নলডাঙ্গা উপজেলায় এই ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন নলডাঙ্গা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আনিসুর রহমান।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী আব্দুস সামাদ দেওয়ান (৫০) নলডাঙ্গা বাজারের একটি কাপড়ের দোকানের মালিক। 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শনিবার দুপুরের দিকে আব্দুস সামাদের দোকানে গিয়ে চাঁদা দাবি করেন একদল হিজড়া। এসময় আব্দুস সামাদ তাদের ৫ টাকা দেন। তবে, চাহিদা অনুযায়ী টাকা না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ হন তারা। এই নিয়ে ওই ব্যবসায়ীর সাথে বচসায় জড়িয়ে পড়েন হিজড়ারা। একপর্যায়ে তাদের দলের একজন একটি কাঠের টুল দিয়ে আব্দুস সামাদের মাথায় আঘাত করলে রক্তাক্ত হন তিনি। এসময় আশেপাশের দোকানিরা ক্ষুব্ধ হয়ে তৃতীয় লিঙ্গের ওই দলের সদস্যদের মারধর করেন।       

খবর পেয়ে নলডাঙ্গা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তৃতীয় লিঙ্গের দলটিকে আটক করে এবং আহত ব্যবসায়ীকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে বিকালে উভয়পক্ষকে থানায় ডেকে ঘটনার মীমাংসা করেন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুর রহমান। এসময় হিজড়াদের ওই দলটিকে এই ঘটনার জন্য ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ব্যবসায়ী আব্দুস সামাদ দাবি করেন, চাহিদামতো টাকা না দেওয়ায় তৃতীয় লিঙ্গের দলটি তার ক্যাশবাক্স থেকে টাকা বের করে নিতে উদ্যত হয়। এসময় তিনি বাধা দিলে তাকে মারধর করে তারা।

তবে, তৃতীয় লিঙ্গের ওই দলটির সদস্যরা দাবি করেন যে তাদের উপরই আশেপাশের দোকানিরা প্রথমে হামলা চালিয়েছে।

ওসি শফিকুর রহমান এপ্রসঙ্গে বলেন, "আব্দুস সামাদের চিকিৎসার জন্য তৃতীয় লিঙ্গের সদস্যরা  ২ হাজার টাকা দিয়েছে। ভবিষ্যতে যেকোনো উৎসবে দোকানিরা যা দিবে তাই নিয়েই তারা সন্তুষ্ট থাকবে এমন মুচলেকার ভিত্তিতে বিষয়টি মীমাংসা করা হয়েছে।"