• শনিবার, আগস্ট ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৩৮ রাত

যমুনা নদীতে নৌকাডুবে দুই নারীর মৃত্যু, নিখোঁজ ৫

  • প্রকাশিত ০৩:০৬ বিকেল আগস্ট ১৩, ২০১৯
নৌকাডূবি
প্রতীকী ছবি

মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) সকালে উপজেলার কাজলা ইউনিয়নের কুড়িপাড়ায় যমুনা নদীতে এঘটনা ঘটে। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা নৌকা নিয়ে উদ্ধারকাজ চালায়

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে যমুনা নদীতে প্রবলস্রোতে ও ঘুর্ণাবর্তে শ্যালোচালিত যাত্রীবাহী নৌকাডুবে দুই নারী যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। অন্যরা সাঁতরিয়ে তীরে উঠতে পারলেও ৫জন নিখোঁজ রয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) সকালে উপজেলার কাজলা ইউনিয়নের কুড়িপাড়ায় যমুনা নদীতে এঘটনা ঘটে। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা নৌকা নিয়ে উদ্ধারকাজ চালায়।

মৃতরা হলেন বগুড়ার সারিয়াকান্দির মানিকদাইর গ্রামের মৃত মনজের শেখের স্ত্রী আমেনা বেগম (৫৫) ও জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার পয়লাকান্দি গ্রামের ইউসুফ আলীর স্ত্রী জহুরা বেগম (৪০)।

অন্যদিকে নিখোঁজরা হলেন, জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার কয়লাকান্দি গ্রামের সফুর আলী (৫৫), তার ৩ বছরের মেয়ে সুরমা আকতার, একই উপজেলার চর পাকেরদহ গ্রামের জাহিদুল ইসলাম (২৩), তার ৭ মাস বয়সী শিশু আল হাবিদ জোনায়েদ ও বগুড়ার সারিয়াকান্দির মানিকদাইর গ্রামের রেজাউল ইসলামের স্ত্রী কাজলী বেগম (৪০)।

সারিয়াকান্দি থানার এসআই সুব্রত, এসআই সাধক চন্দ্র রায় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার চালুয়াবাড়ি ইউনিয়নের মানিকদাইর যমুনা নদীর ঘাট থেকে অন্তত ১০০ যাত্রী নিয়ে শ্যালো নৌকা কালিতলা ঘাটের দিকে রওনা হয়। সাড়ে ১০টার দিকে নৌকা কাজলা ইউনিয়নের কুড়িপাড়ায় পৌঁছলে প্রবলস্রোত ও ঘুর্ণাবর্তের সম্মুখীন হয়।

একপর্যায়ে নৌকাটি মাঝ নদীতে ডুবে যায়। অধিকাংশ যাত্রী সাঁতরিয়ে তীরে উঠেন। নিখোঁজ ৭জনের মধ্যে আমেনা বেগম ও জহুরা বেগমের লাশ নদী থেকে উদ্ধার করা হয়। লাশ দুটি সারিয়াকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাখা হয়েছে। বেলা ২টায় এখবর পাঠানো পর্যন্ত পুলিশের নৌকা নিয়ে নিখোঁজদের খোঁজ হচ্ছিল।

সারিয়াকান্দি ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মোজাম্মেল হক জানান, নদীতে শুধু স্যান্ডেল ভাসতে দেখা যাচ্ছে।  নিখোঁজ কাউকে পাওয়া যায়নি।