• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০১ রাত

একেক ডায়াগনস্টিকের ডেঙ্গুর ফলাফল একেকরকম!

  • প্রকাশিত ১১:৩৯ সকাল আগস্ট ১৮, ২০১৯
ডেঙ্গু
প্রতীকী ছবি বিগস্টক

এবিষয়ে নওগাঁ সিভিল সার্জন ডা: মুমিনুল হক বলেন, ‘বিষয়টি আমি অবগত আছি। ডেঙ্গুর মতো স্পর্শকাতর বিষয়ে ভুল রিপোর্ট কোনভাবেই মেনে নেয়া যাবেনা’

নওগাঁর বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোর বিরুদ্ধে একেকধরনের ডেঙ্গুর ফলাফল আসার অভিযোগ উঠেছে। ফলে নওগাঁর সাধারণ জনগণ জ্বরে আক্রান্ত হলেই ছুটে যাচ্ছেন সদর হাসপাতালে। তবে, হাসপাতালে ডেঙ্গু পরীক্ষার পর্যাপ্ত কিটস না থাকায় বাইরের ক্লিনিকগুলোতে পরীক্ষা করাচ্ছেন। কিন্তু এপরীক্ষা নিয়ে ভুল ও একেকরকম ফলাফল আসার অভিযোগ উঠেছে। ফলে জনমনে একধরনের আতঙ্ক দেখা গেছে। 

বলিহার ডিগ্রি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো: আবু নাসের বলেন, আমার ছেলে ইসতিয়াক আহম্মেদ(৩০) এর জ্বর হলে ১০ আগস্ট নওগাঁ ল্যাব এইড হাসপাতালে রক্ত পরীক্ষা করানো হয়। সেখানে ডাঃ সমশের আলী স্বাক্ষরিত ফলাফলে ডেঙ্গু এনএস-১ পজিটিভ দেখানো হয়। আমি ছেলেকে নিয়ে ঢাকার মহাখালী আইসিটিডিআরসি হাসপাতালে ঈদের পরদিন মঙ্গলবার পরীক্ষা করি সেখানে দেখা গেছে ডেঙ্গু নেই। অর্থাৎ ল্যাব এইডে ডেঙ্গু পজিটিভি ফলাফল দিলেও আইসিটিডিআরসি নেগেটিভ ফলাফল দেয়।

অপরদিকে,  এম মাসুদ রানার হাসিনুর হাসান জীম (২৩) এর শরীরে জ্বর অনুভূত হয়। গত ১৫ আগস্ট নওগাঁ ল্যাব এইডে রক্ত পরীক্ষা করলে ডাঃ সমশের আলী স্বাক্ষরিত ফলাফলে ডেঙ্গু এনএস-১ পজিটিভ দেখানো হয়েছে। এই ফলাফল নিশ্চিত হওয়ার জন্য শহরের কমপ্যাথ ল্যাবরেটরিতে একই পরীক্ষায় নেগেটিভ ফলাফল প্রদর্শিত হয়। দু’টি ল্যাবে পৃথক ফলাফল আসলে ওইদিনই বগুড়া ইবনে সিনা কনসালটেশন সেন্টারে অপর এক রিপোর্টে নেগেটিভ ফলাফল আসে। 

নওগাঁ ল্যাব এইডের প্রশাসনিক কর্মকতা সাইফুল ইসলাম বলেন, “আমাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রক্রিয়াগত কোন ত্রুটি নাই। তবে ডেঙ্গু পরীক্ষার কিটসের (ডিভাইস) ক্রুটির কারণে এসমস্যা হতে পারে। কারণ বিদেশ থেকে ডিভাইস আমদানি করার ক্ষেত্রে সরকারের কোন বিধি-নিষেধ আরোপিত হয়নি।” 

এবিষয়ে নওগাঁ সিভিল সার্জন ডা: মুমিনুল হক বলেন, “বিষয়টি আমি অবগত আছি। ডেঙ্গুর মতো স্পর্শকাতরবিষয়ে ভুল রিপোর্ট কোনভাবেই মেনে নেয়া যাবে না।” পরিদর্শন করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।