• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৫৪ সন্ধ্যা

কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের লাশ দেশে পৌঁছেছে

  • প্রকাশিত ০৫:১৭ সন্ধ্যা আগস্ট ১৮, ২০১৯
আহাজারি
নিজ বাড়িতে লাশ পৌঁছানোর পর নিহতের স্বজনদের আহাজারি। ঢাকা ট্রিবিউন

রাত ২টার দিকে দ্রুত গতিতে একটি জাগুয়ার সজোরে একটি মার্সিডিজকে ধাক্কা দিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মইনুল আলম ও ফারহানা ইসলাম তানিয়াকে চাপা দেয়

কলকাতা শহরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত গ্রামীণফোন কোম্পানির কর্মকর্তা মইনুল আলম ও তার চাচাতো বোন ব্যাংক কর্মকর্তা ফারহানা ইসলাম তানিয়ার লাশ দেশে আনা হয়েছে। রবিবার সকালে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে তাদের মৃতদেহ বাংলাদেশে আনা হয়।

দুর্ঘটনার সময় ঘটনাস্থলে থাকা নিহত মইনুল আলমের চাচাতো ভাই কাজী শফিউর রহমান চৌধুরী জিহাদ জানান, গত বুধবার ডাক্তার দেখাতে তারা ভারতে যান। কলকাতা শহরের  বাইপাসের সড়কের পাশে একটি বেসরকারি হাসপাতালে চোখ দেখিয়ে শুক্রবার রাতের খাওয়া শেষে রাত ২ টার দিকে বৃষ্টির কারণে সেক্সপিয়র সরণির একটি পুলিশ বক্সে দাড়িয়ে ছিলেন সোহাগ, তার চাচাতো ভাই জিহাদ ও ফারজানা ইসলাম তানিয়া। বিড়ালা প্যানেটোরিয়ামের দিক থেকে কলামন্দিরের দিকে যাওয়ার সময় প্রচণ্ড গতির একটি জাগুয়ার সজোরে একটি মার্সিডিজকে ধাক্কা দেয়। এরপর জাগুয়ারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা সোহাগ ও তানিয়াকে চাপা দেয়। এসময় জিহাদ দূরে থাকায় বেঁচে যান তিনি।

ঘটনাস্থল থেকে মইনুল এবং তানিয়াকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে  এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। মইনুল ঝিনাইদহ পৌর এলাকার ভুটিয়ারগাতি গ্রামের  এ্যাড খলিলুর রহমানের ছেলে। কাজের সূত্রে তিনি ঢাকায় বসবাস করতেন। নিহত তানিয়া ঢাকায় সিটি ব্যাংকের ধানমণ্ডি শাখার ম্যানেজার ছিলেন। ঝিনাইদহে ইতোমধ্যে নিহতদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে বলে তাদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে দুর্ঘটনার জন্য কলকাতার রেস্তোরাঁ আরসালানের মালিকের ছেলে পারভেজ আরসালানকে শনিবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে কলকাতা পুলিশ। দুর্ঘটনার সময় তিনিই ঘাতক গাড়িটির চালকের আসনে ছিলেন বলে তদন্ত কর্মকর্তারা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, ২২ বছর বয়সী আরসালান পারভেজ লন্ডনের এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছেন। কয়েকদিনের ছুটিতে বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন। তার বিরুদ্ধে 'মোটর ভেহিক্যালস অ্যাক্ট'র একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। এছাড়া বাংলাদেশ হাইকমিশনের পক্ষ থেকেও মামলা দায়ের করা হয়েছে।