• বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৮ রাত

সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ১১১ দফা সুপারিশ পেশ

  • প্রকাশিত ০৬:২৭ সন্ধ্যা আগস্ট ২২, ২০১৯
ওবায়দুল কাদের
বৃহস্পতিবার সড়কে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে এ সংক্রান্ত কমিটির ১১১টি সুপারিশ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের অবহিত করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ইউএনবি

১১১টি সুপারিশের মধ্যে আশু করণীয় ৫০টি ও স্বল্পমেয়াদী ৩২টি এবং দীর্ঘমেয়াদী ২৯ টি

সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে ১১১ দফা সুপারিশ সম্বলিত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদারকরণ এবং সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সুপারিশমালা প্রণয়নে গঠিত কমিটি। বৃহস্পতিবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের কাছে কমিটির প্রধান ও সাবেক নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এই প্রতিবেদন জমা দেন বলে ইউএনবি জানিয়েছে।

কমিটির সাথে বৈঠক শেষে এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের অবহিত করে ওবায়দুল কাদের বলেন, "সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদারকরণ ও দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সুপারিশ প্রণয়ন করার জন্য গঠিত কমিটির সুপারিশমালা পেয়েছি। এই ১১১টি সুপারিশমালা নিয়ে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের সভা আহ্বান করা হয়েছে। ওই সভায় সুপারিশগুলো সংযোজন,পরিবর্তন ও পরিমার্জন করে অনুমোদন করা হবে। সুপারিশগুলো অনুমোদন ও বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া কী হবে সেব্যাপারেও ওইদিন সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।"

১১১টি সুপারিশ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, "১১১টি সুপারিশের মধ্যে আশু করণীয় ৫০টি, স্বল্পমেয়াদী ৩২টি ও দীর্ঘমেয়াদী ২৯টি। সুপারিশমালার মধ্যে সড়ক দুর্ঘটনার প্রধান কারণগুলো উঠে এসেছে। যেমন- অদক্ষ চালক, ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন, চালকের অসতর্কতা, সড়ক নির্মাণে ত্রুটি, যাত্রী পথচারীদের অসচেতনতা ইত্যাদি।"

মন্ত্রী আরও বলেন, "জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের ২৬তম সভায় সড়ক পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদারকরণ এবং দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সরকারের জন্য গত ১৯ ফেব্রুয়ারিতে ১৫ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি ৭টি সভার মাধ্যমে দুর্ঘটনার কারণ চিহ্নিত করে সুপারিশমালার প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।"

এসময় পরিবহন খাতে শৃঙ্খলা জোরদারকরণ ও সড়ক দুর্ঘটনারোধে সুপারিশমালা প্রণয়নে গঠিত কমিটির প্রধান শাজাহান খানসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।