• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৪৭ সকাল

শ্বশুরবাড়ি থেকে বাপের বাড়িতে ইয়াবা সরবরাহের অভিযোগে নারী গ্রেফতার

  • প্রকাশিত ০৯:২৫ রাত আগস্ট ২২, ২০১৯
গ্রেফতার
প্রতীকী ছবি।

জেল থেকে জামিনে মুক্ত হয়ে নতুন কৌশলে আবার মাদক ব্যবসা শুরু করেছিলেন খালেদা

দিনাজপুরের হিলি সীমান্ত এলাকায় শ্বশুরবাড়ি থেকে ইয়াবা সংগ্রহ করে বাপের বাড়িতে সরবরাহ করতে গিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন এক নারী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মাটিডালি বিমান মোড় থেকে খাইরুন্নেছা খালেদা (৪৭) নামের ওই নারীকে গ্রেফতার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন বগুড়ার ফুলবাড়ি পুলিশ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর শফিকুল ইসলাম পলাশ। এসময় ওই নারীর কাছ থেকে ৩০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গ্রেফতার খালেদার বাড়ি বগুড়া শহরের চেলোপাড়ায়। দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার নওনাপাড়া গ্রামে তার বিয়ে হয়। তবে, বিয়ের পর থেকে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়েন খালেদা। ২০০৮ সালে পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানে তাকে প্রথম গ্রেফতার করা হয়। কিছুদিন জেলে থাকার পর জামিনে ছাড়া পান তিনি।

এদিকে ছাড়া পাওয়ার পর কৌশল পাল্টে আবারো মাদক ব্যবসা শুরু করেন খালেদা। তার ব্যবসার নতুন কৌশল অনুযায়ী তিনি শ্বশুরবাড়িতে বিক্রির বদলে বাপের বাড়িতে মাদক সরবরাহ করতেন। প্রতি মাসেই তার মাদকের চালান বগুড়ায় তার বাপের বাড়িতে আসতো।

ফুলবাড়ি পুলিশ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর শফিকুল ইসলাম পলাশ ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "খালেদাকে গ্রেফতার করতে অনেকদিন ধরে সোর্স লাগানো ছিল। কিন্তু তিনি বারবার কৌশল পরিবর্তন করায় বেঁচে যান। তবে, বৃহস্পতিবার পুলিশের ফাঁদে পা দেন খালেদা। কৌশলে তাকে মাটিডালি বিমান মোড়ে ডেকে আনা হয়।  সেখানে পৌঁছে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে খালেদা পালাতে চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন তিনি। তার কাছে ৩০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট পাওয়া গেছে। পরে তিনি তার মাদক ব্যবসার কৌশল পুলিশকে জানিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা হয়েছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।"