• শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৫৪ সন্ধ্যা

পররাষ্ট্রমন্ত্রী: মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতেই হবে

  • প্রকাশিত ০৪:৪৭ বিকেল আগস্ট ২৪, ২০১৯
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল মোমেন
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আবদুল কালাম আবদুল মোমেন। ফাইল ছবি।

'প্রত্যাবাসনে ব্যর্থতার দায় মিয়ানমারের'

মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতেই হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

শনিবার (২৪ আগস্ট) সিলেটে দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার্থে আর্থিক সহায়তা কর্মসূচির চেক বিতরণ অনুষ্ঠানের আগে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এই মন্তব্য করেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, "মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের মাঝে আস্থা তৈরি করতে পারেনি বলেই তারা তাদের দেশে ফিরতে রাজি হচ্ছে না। তবে দেশটির ওপর চাপ সৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে। তাদের রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতেই হবে। আর তাদেরও ফিরে যেতে হবে।"

"সব প্রস্তুতি থাকা সত্ত্বেও রোহিঙ্গারা ফেরত যেতে রাজি না হওয়ায় বৃহস্পতিবার দ্বিতীয়বারের মতো প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া ভেস্তে গেল। প্রত্যাবাসনে ব্যর্থতার দায় মিয়ানমারের", যোগ করেন তিনি।

ড. মোমেন আরও বলেন, "আমরা মিয়ানমারকে আগেই প্রস্তাব দিয়েছিলাম যে রোহিঙ্গাদের ১০০ জন নেতাকে সেখানে নিয়ে যেতে। তাদের প্রত্যাবর্তনের জন্য সেখানে কি কি করা হয়েছে সেগুলো দেখে এসে তারা অন্যদের বোঝাবে। সেখানে চীন ১০০টি এবং ভারত ২৫০ বাড়ি বানিয়ে দিয়েছে। সেগুলো দেখে এসে তারা যখন অন্য রোহিঙ্গাদের বলতো তখন তারা আশ্বস্ত হতো; প্রত্যাবর্তনে রাজি হতো। কিন্তু মিয়ানমার সেটা করেনি। তাই প্রত্যাবর্তনের ব্যর্থতার দায় তাদেরই।"

পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেটে দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার্থে আর্থিক সহায়তা কর্মসূচির চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে ড. মোমেন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নকে ‘মানবিক উন্নয়ন’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, "শেখ হাসিনা সরকার কর্তৃক গৃহীত সামাজিক নিরাপত্তায় নানামুখী কর্মসূচির কারণে এটা সম্ভব হয়েছে।"