• শুক্রবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৪৬ বিকেল

সন্তানকে মারধরে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা

  • প্রকাশিত ০৯:০৭ রাত আগস্ট ২৫, ২০১৯
হত্যা
প্রতীকী ছবি

বাড়িতে ফিরেই মন দিয়ে লেখাপড়া না করার অজুহাত তুলে নিজের মেয়েকে মারতে থাকেন তিনি 

লালমনিরহাটে সন্তানকে মারধরে বাধা দেওয়ায় পূর্ণিমা রানী (৩৫) নামে এক গৃহবধুকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে।

শনিবার (২৫ আগস্ট) রাতে উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ গোবদা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম। পরে খবর পেয়ে রবিবার সকালে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে অভিযুক্ত স্বামী রবি বর্মণকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শনিবার দিবাগত রাতে ভ্যান চালক রবি বর্মণ বাজার থেকে বাড়িতে ফিরেই সন্তানদের খুঁজতে থাকেন। পরে মেয়েকে পেয়ে লেখাপড়া না করার অজুহাত তুলে মারতে থাকেন। এসময় তার স্ত্রী বাচ্চাদের মারধর করতে নিষেধ করেন। এতে উত্তেজিত হয়ে স্ত্রীকেই মারধর শুরু করেন অভিযুক্ত রবি বর্মণ। পরে গভীর রাতে নিজের স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন তিনি। পরদিন সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে নিহতের পরিবারের লোকজন পুলিশে খবর। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে এবং নিহতের স্বামী রবি বর্মণকে গ্রেফতার করে।

আদিতমারী থানার ওসি সাইফুল ইসলাম এপ্রসঙ্গে ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "শনিবার রাত ১১টা ৪৫ মিনিট থেকে ভোর ৪টার মধ্যে যেকোনো এক সময়ে পূর্ণিমাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এই ঘটনায় নিহতের ছোট বোন জয়তী রানীর দায়ের করা মামলায় রবি বর্মণকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এজাহারে নাম উল্লেখ করা অপর দুই আসামিকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।"