• রবিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৩ রাত

গণপিটুনির শিকার ব্যক্তিদের বাঁচাতে সরকারের ব্যর্থতা প্রশ্নে হাইকোর্টের রুল

  • প্রকাশিত ০৩:০২ বিকেল আগস্ট ২৬, ২০১৯
হাইকোর্ট

গত ২০ জুলাই গণপিটুনিতে তাসলিমা বেগম রেনুসহ অন্যদের বাঁচাতে সরকারের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয় হাইকোর্টে

গণপিটুনিতে নিহত তাসলিমা বেগম রেনুসহ অন্যদের বাঁচাতে বিবাদী ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

এক রিটের শুনানি করে সোমবার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন বলে ইউএনবির একটি খবরে বলা হয়েছে। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান।

একইসাথে গণপিটুনির মতো ঘটনা প্রতিরোধে কি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে এবং এরসাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা জানতে চেয়েছে আদালত। আগামী ২৮ নভেম্বরের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব ও পুলিশের মহাপরিদর্শককে এ বিষয়ে আদালত অবহিত করার জন্য নির্দেশ দিয়েছে।

এর আগে গত ২০ জুলাই রাজধানীর উত্তর-পূর্ব বাড্ডার বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনুকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় রিট আবেদন করেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান।

রিটে গণপিটুনিতে তাসলিমা বেগম রেনুসহ অন্যদের বাঁচাতে বিবাদীদের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, তথ্য সচিব, পুলিশের আইজি, ডিএমপি কমিশনার ও বাড্ডা থানার ওসিকে রিটে বিবাদী করা হয়।