• সোমবার, অক্টোবর ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:১৮ দুপুর

'আল্লাহর পথে চলিলাম' লিখে বাড়ি ছাড়লো কিশোর

  • প্রকাশিত ০৮:১০ রাত সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯
নিখোঁজ স্কুলছাত্র
নিখোঁজ স্কুলছাত্র মোহায়মিনুল ইসলাম। ঢাকা ট্রিবিউন

'আমি গৃহপলায়ন করি নাই, গৃহত্যাগ করিলাম'

চিঠিতে 'আল্লাহর পথে চলিলাম' লিখে সাতক্ষীরা শহরের এক মেধাবী কিশোর বাড়ি ছেড়েছে। ওই কিশোরের পরিবারের সদস্যদের ধারণা কোনো জঙ্গিগোষ্ঠির সাথে সম্পৃক্ত হয়ে এই কাজ করেছে সবসময় ক্লাসে প্রথম হওয়া মোহায়মিনুল।

জানা যায়, মোহায়মিনুল ইসলাম নামের ওই কিশোর সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্র। সাতক্ষীরা সদর থানার কনস্টেবল মোস্তাফিজুর রহমানের সন্তান সে। শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) পড়ার টেবিলে পরিবারের উদ্দেশে একটি চিঠি রেখে এশার নামাজ পড়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সে। এরপর থেকে তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

চিঠিতে সে লেখে, "আমি গৃহপলায়ন করি নাই। গৃহত্যাগ করিলাম। সত্যের সন্ধানে যাচ্ছি। আমাকে খোঁজাখুঁজি করে লাভ নেই। সত্যের মধ্যে সত্য আছে। কাজের ভেতরে কাজ আছে। দীর্ঘকালে আমাকে কেহ চিনে নাই, জানে নাই আমার কাজকে। আজ হয়তো প্রভুর অনুমতিক্রমে আমার সময় শেষ। তাই আল্লাহর পথে চলিলাম। ইহা স্বাভাবিক। অন্তত: মুসলিমের পক্ষে। আমি সত্য লইয়াই আঁধার রাতে বাহির হইয়াছি।"

পরদিন মোহায়মিনুলের স্কুলে বিষয়টি সম্পর্কে জানানো হয়। ওই স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, মেধাবী মোহায়মিনুল খুব চুপচাপ স্বভাবের। প্রায় কারো সাথেই কথা বলতো না সে। তবে, সম্প্রতি সে তার সহপাঠিদের ইসলামি আদর্শে উদ্বুদ্ধ করার চেষ্টা চালায় বলে স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানিয়েছে।

ওই কিশোরের বড় ভাই আবদুল আহাদ জানান, "ক্লাসে মোহায়মিনুল সবসময় প্রথম হতো। তার কোনো বন্ধু আছে বলে শুনিনি কখনো। এই ব্যাপারে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি জিডি করা হয়েছে।"

মোহায়মিনুলের বাবা পুলিশ কন্সটেবল মোস্তাফিজুর রহমান ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "আমার ছেলে নম্র ও ভদ্র স্বভাবের। সে কোনো জঙ্গিগোষ্ঠীর খপ্পরে পড়ে থাকতে পারে। জেলা পুলিশের সহায়তায় তাকে আমরা খুঁজছি। এখনও পাইনি।"

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, "শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে বাড়ি ছাড়ার বিষয়টি জানার পর পুলিশ মাঠে নেমেছে। সে চিঠি লিখেছে আধ্যত্মিক ভাষায়। চিঠি থেকে কোনো তথ্য উদ্ধার করা সম্ভব নয়।"

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. ইলতুৎমিশ জানান, "ছেলেটির নিখোঁজের খবর শুনে আমরা সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে খোঁজখবর নিয়েছি। তবে সে কোথায় গেছে এবং কেন গেছে তা এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।"

উল্লেখ্য, সাতক্ষীরায় জঙ্গিপ্রবণতা নতুন নয়। দেশের প্রায় প্রত্যেকটি জঙ্গিবাদী ঘটনার সাথে সাতক্ষীরার ছাত্র-যুবকদের সম্পৃক্ততা ছিল। এই কারণে মোহায়মিনুলকে যদি খুঁজে বের করা না যায় তাহলে তারও জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।