• শুক্রবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:০৯ রাত

দিনের পর দিন খালুর কাছে ধর্ষিত, মাদ্রাসাছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা

  • প্রকাশিত ০৯:২১ রাত সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯
ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

খালা বাসায় না থাকলে জোর করে ওই শিশুকে ধর্ষণ করতেন খালু লিটন সর্দার

খালুর ধর্ষণের শিকার হয়ে ১২ বছরের এক মাদ্রাসাছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। রবিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) শিশুটিকে উদ্ধার করে রাত পৌনে ৮টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন কেরানীগঞ্জ মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রাসেল মোল্লাহ।

পুলিশ সূত্র জানা যায়, ভুক্তভোগীর মা অনেক আগেই মারা গেছেন। মায়ের মৃত্যুর পর ২য় বিয়ে করে আলাদা হয়ে যান ওই ছাত্রীর পিতা। পরে ওই ছাত্রীর দায়িত্ব নেন তার খালা। খালার বাসায় থেকে একটি মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে সে।

কিন্তু খালা যখন বাসায় থাকে না, তখন ভয়ভীতি দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করতেন তার খালু লিটন সর্দার। গত মার্চ মাসে ওই ছাত্রীকে বিভিন্ন সময়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন খালু লিটন সর্দার (৩৮)। এতে সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। শিশুটি ভয়ে এই ব্যাপারে মুখ না খুললেও, অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ায় ঘটনাটি জানাজানি হয়ে যায়।

পরে এ বিষয়ে জানতে পেরে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ। এছাড়াও অভিযুক্ত লিটন সর্দারকে এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়।

এসআই রাসেল মোল্লাহ এ প্রসঙ্গে ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, "শিশুটির বাবা আবু তাহের বিষয়টি জানতে পেরে থানায় অভিযোগ করেন। শিশুটির শারীরিক পরীক্ষার জন্য রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্ত লিটন সর্দারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায়   থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।"