• বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৩৮ রাত

বকেয়া টাকা চাওয়ায় ক্যানটিন ম্যানেজারকে পেটালো ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা

  • প্রকাশিত ১১:০৫ রাত অক্টোবর ৩, ২০১৯
ঢাবি
ছাত্রলীগ নেতা ইমন। ছবি: সংগৃহীত

হল প্রভোস্ট জিয়া রহমান বলেন, ‘আমি ইতিমধ্যেই বিষয়টি শুনেছি এবং ঘটনা সত্য। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে’

বকেয়া টাকা চাওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের ক্যানটিন ম্যানেজার সাহাবুদ্দিনকে ওই হল শাখা ছাত্রলীগের এক নেতা মারধর করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার নাম ইশতিয়াক আহমেদ ইমন। তিনি মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের উপ তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক।

বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) ক্রিকেট স্ট্যাম্প দিয়ে মারধর করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, ম্যানেজম্যান্ট বিভাগের ছাত্র ইমন ৩২২ নং কক্ষে ম্যানেজারকে মারধরের পর হল ক্যানটিন বন্ধ করে দেন। ইমনের বিরুদ্ধে ভর্তি জালিয়াতির সাথে জড়িত থাকারও অভিযোগ রয়েছে বলে জানা গেছে।

ভিকটিম সাহাবুদ্দিন অভিযোগ করেন, হল শাখা ছাত্রলীগের নির্বাহী সদস্য খালিদ হাসান রবিন সকালে ওই ছাত্রলীগ নেতার কক্ষে গিয়ে তাকে দ্রুত ইমনের সাথে দেখা করতে বলেন।

তিনি দাবি করেন, “সকাল ৯টার দিকে আমি ইমনের কক্ষে গিয়ে বকেয়া টাকা চাইলে তিনি আমাকে ক্রিকেট স্ট্যাম্প দিয়ে মারতে থাকেন।”

তিনি আরও বলেন, “বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে আমি হাতে মারাত্মকভাবে আঘাত পাই। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আমি প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছি।”

ইমনের সাথে মোবাইল ফোনে কয়েকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

হল প্রভোস্ট জিয়া রহমান বলেন, “আমি ইতোমধ্যেই বিষয়টি শুনেছি এবং ঘটনা সত্য। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং তিনদিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।”

হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাসুদ লিমন বলেন, “এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। আমরা দ্রুত সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।”

এদিকে ভিপি শরিফুল ইসলাম শাকিল এবং জিএস হাসিবুল হোসেন শান্ত স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে হলের ক্যানটিন ম্যানেজারকে মারধরের ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে হল ইউনিয়ন।