• মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:১৮ দুপুর

বিয়ের ২ মাসের মধ্যে গৃহবধূ খুন

  • প্রকাশিত ০২:২০ দুপুর অক্টোবর ৮, ২০১৯
শারমিন আক্তার সুমি
শারমিন আক্তার সুমি (১৯)

নিহত সুমির মা জানান, তার মেয়ের গলায় ও শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে 

চট্টগ্রাম মহানগরীর পাঁচলাইশের নাজির পাড়ায় বিয়ের দুই মাসে মধ্যে শারমিন আক্তার সুমি (১৯) নামের এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী সোলায়মান হোসেন লিটনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (৭ অক্টোবর) রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সুমির মৃত্যু হয়।

নাজির পাড়ায় মানিক ভিলায় শ্বশুরের বাসায় পারিবারিক কলহের জেরে সুমিকে নির্যাতন করা হতো বলে দাবি করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

নিহত সুমির মা চেমন আরা বেগম জানান, দুই মাস আগে নোয়াখালীর উত্তর শুল্লিকা এলাকার কামাল উদ্দিনের ছেলে লিটনের সঙ্গে সুমির বিয়ে হয়। বিয়ের সময় ৫০ হাজার টাকা এবং আসবাবপত্রসহ অন্য মালামাল দেওয়া হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকে সুমির ওপর শারীরিক নির্যাতন শুরু করেন লিটন। এ নিয়ে সালিশও হয়েছে।

চেমন আরা আরও জানান, সোমবার সন্ধ্যায় লিটন তাদের ফোন করে জানায় সুমি অসুস্থ হওয়ায় তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। পরে হাসপাতালে গিয়ে তারা সুমির লাশ দেখতে পান।

সুমির মায়ের অভিযোগ, তার মেয়েকে নির্যাতন চালিয়ে এবং শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। তার গলায় ও শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপারে পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাসেম বলেন, "দাম্পত্য কলহের জেরে সুমি নামের এক গৃহবধূ নির্যাতনের কারণে মারা গেছেন। আমরা তার স্বামীকে গ্রেফতার করেছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে।"