• বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৩০ রাত

আবরার হত্যা মামলা: অমিত ও তোহার পাঁচ দিনের রিমান্ড

  • প্রকাশিত ০৪:০২ বিকেল অক্টোবর ১১, ২০১৯
বুয়েট আবরার ফাহাদ
নিহত আবরার ফাহাদ। ছবি: সংগৃহীত

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ডিবি পুলিশের পরিদর্শক ওয়াহিদুজ্জামান ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলেন

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় গ্রেফতার দুই শিক্ষার্থীকে পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সরাফুজ্জামান আনছারী শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। আসামিরা হলেন- অমিত সাহা হোসেন মো. তোহা। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী হেমায়েতউদ্দিন খানের বরাত দিয়ে এখবর জানিয়েছে অনলাইন গণমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী হেমায়েতউদ্দিন খান শুনানিতে অংশ নেন। আসামিপক্ষের আইনজীবী রিমান্ড বাতিলের আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক উভয়কে পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ডিবি পুলিশের পরিদর্শক ওয়াহিদুজ্জামান ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলেন। এর আগে গত ৭ অক্টোবর এ মামলায় গ্রেফতার ১০ আসামিকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠান ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিট্রেট।

উল্লেখ্য, গত ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয় বুয়েটের ১৭তম ব্যাচের ইলেকট্রিক অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বীকে। ওইদিন রাত তিনটার দিকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে আবরারের মরদেহ উদ্ধার করে কর্তৃপক্ষ। পুলিশ জানিয়েছে, তাকে পিটিয়ে হত্যার প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় একাধিক ভিডিও ফুটেজও পাওয়া যায়। আবরারকে হত্যার ঘটনায় তার বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে ৭ অক্টোবর রাজধানীর লালবাগ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১৯ জনকে আসামি করা হয়েছে। আবরার হত্যাকাণ্ডে সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগে বুয়েট ছাত্রলীগের মোট ১৭ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়।