• সোমবার, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:২৭ দুপুর

কখনো পুলিশ, কখনো সাংবাদিক সেজে নারীর মাদক ব্যবসা!

  • প্রকাশিত ০৮:৩৮ রাত অক্টোবর ১৬, ২০১৯
যশোর প্রতারণা
কখনো সাংবাদিক, কখনো পুলিশ পরিচয়ে প্রতারণা ও মাদক ব্যবসা করতেন যশোরের এই নারী সংগৃহীত

সম্প্রতি পুলিশ জানতে পারে, মোটরসাইকেলের সামনে ‘প্রেস’ লিখে শহরময় ঘুরে বেড়ান এক নারী। সাংবাদিক পরিচয়ে তিনি বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবা বিক্রি করে আসছিলেন

পুলিশ ও সাংবাদিক পরিচয়ে প্রতারণা ও মাদক বিক্রির অভিযোগে চার সহযোগীসহ রেহেনা ওরফে লিপি (২৫) নামে এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৬ অক্টোবর) বিকেলে তাদের যশোর জিলা স্কুলের সামনে থেকে আটক করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

আটক রেহেনা চৌগাছা উপজেলার মাশিলা নারায়ণপুর গ্রামের মিঠুর স্ত্রী। তিনি যশোর শহরের রেলগেট এলাকায় বসবাস করেন। তার সহযোগীদের কাছ থেকে দুইটি ওয়াকিটকি সেট উদ্ধার করা হয়েছে। 

আটক অন্যরা হচ্ছে- যশোর শহরের চাঁচড়া রায়পাড়া এলাকার প্রিয়া (২০), শংকরপুর সরকারি মুরগীর খামার এলাকার সোহেল (১৯) এবং রেলস্টেশন ও আশ্রম রোড এলাকার দুই কিশোর।

কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (এসআই) সমীর কুমার সরকার ঢাকা ট্রিবিউন’কে জানান,  সম্প্রতি পুলিশ জানতে পারে, মোটরসাইকেলের সামনে ‘প্রেস’ লিখে শহরময় ঘুরে বেড়ান এক নারী। সাংবাদিক পরিচয়ে তিনি শহরের বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবা বিক্রি করে আসছিলেন। 

বুধবার বিকেলে তারা যশোর জিলা স্কুলের সামনে তার সঙ্গীরা অবস্থান করছে জানতে পেরে প্রিয়া, সোহেল ও দুই কিশোরকে আটক করে পুলিশ। এসময় সোহেলের কাছে একটি ওয়াকিটকি পাওয়া যায়। ওয়াকিটকিটি সে ‘সাংবাদিক’ পরিচয়ধারী রেহেনা ওরফে লিপির কাছ থেকে পেয়েছে বলে পুলিশকে জানায়। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী রেহেনাকে আটক করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে রেহেনা জানান, তিনি একটি অনলাইন শপ থেকে ওয়াকিটকি সেটটি কিনেছেন। ওয়াকিটকি দেখিয়ে পুলিশ পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করে আসছিল বলে স্বীকার করে লিপি ও তার সহযোগীরা। 

এসআই সমীর বলেন, পুলিশের পোশাক, হ্যান্ডকাফ, ওয়াকিটকি ইত্যাদিসহ রেহেনার কিছু ছবি পেয়েছে পুলিশ।

তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।