• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৮ রাত

রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসন বাংলাদেশের জন্য ভালো, এডিবি’কে প্রধানমন্ত্রী

  • প্রকাশিত ০৯:৫০ সকাল অক্টোবর ১৭, ২০১৯
প্রধানমন্ত্রী
এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল প্রধানমন্ত্রীর সাথে গণভবনে সাক্ষাৎ করেন। ছবি: পিআইডি

বুধবার এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি একথা বলেন

মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের নিজ ভূমি রাখাইন রাজ্যে দ্রুত প্রত্যাবাসনের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এটা বাংলাদেশের জন্য ভালো হবে যদি তারা যত দ্রুত সম্ভব ফিরে যায়।

বুধবার (১৬ অক্টোবর) এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) সাত সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি একথা বলেন। প্রতিনিধিদলে ছিলেন ৩৩ দেশকে প্রতিনিধিত্ব করা এডিবি’র ছয় পরিচালক ও বিকল্প পরিচালক।

বাংলাদেশকে নির্ভরযোগ্য অংশীদার হিসেবে আখ্যায়িত করে সফররত এডিবি’র পরিচালনা পর্ষদের সফরকারী দলের নেতা ইন-চ্যাঙ সঙ জানান, “এডিবি বাংলাদেশের উন্নয়নের অংশীদার হিসেবে থাকবে।”

সাক্ষাৎ শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

সফররত প্রতিনিধিদল বাংলাদেশের দ্রুত দারিদ্র্য হ্রাস ও উচ্চ জিডিপি প্রবৃদ্ধির পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তন প্রশমন ও খাদ্য নিরাপত্তার প্রশংসা করে। খাদ্য নিরাপত্তা অর্জনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেক অগ্রগতি সাধন করেছে বলে জানান তারা।

এডিবি রোহিঙ্গা বিষয়েও বাংলাদেশকে তাদের সমর্থন দেয়া বজায় রাখবে বলে জানায়।

এডিবি পরিচালক কৃষ পান্ডে বলেন, “বাংলাদেশ বিভিন্ন খাতে, বিশেষ করে পরিবহন, জ্বালানি ও গৃহায়নে অসাধারণ অগ্রগতি করেছে।”

সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গ্রাম-কেন্দ্রিক উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের গ্রামীণ অঞ্চল ও তৃণমূল মানুষ উন্নয়ন কর্মসূচিগুলোতে অগ্রাধিকার পায়।

তিনি বলেন, “সরকার জনগণকে উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে যুক্ত করেছে। আমার দল উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ত্বরান্বিত করতে কঠোর পরিশ্রম করছে।”

যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন নিয়ে তিনি বলেন, আঞ্চলিক যোগাযোগ জোরদার করার জন্য রয়েছে বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত ও নেপাল (বিবিআইএন) উদ্যোগ এবং বাংলাদেশ-চীন-ভারত-মিয়ানমার (বিসিআইএম) অর্থনৈতিক করিডোর।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান সাক্ষাতের সময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা হলেন- এডিবির বিকল্প পরিচালক বৈরমমোহাম্মেদ গারায়েভ, কেনজু ওহি, বোরাক মোইজিনোগলু ও এনরিক গালান এবং বাংলাদেশে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ।