• বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৩০ রাত

অর্থমন্ত্রী: রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে চড়া মূল্য দিচ্ছে বাংলাদেশ

  • প্রকাশিত ১২:১৩ দুপুর অক্টোবর ২০, ২০১৯
অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল
অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ছবি: সৌজন্যে

‘সিদ্ধান্ত নিতে হবে একটা। আপনি কি টাকা চান নাকি রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাবেন। আমাদের উদ্দেশ্য একটাই তাদের ফেরত পাঠানো। এর বাইরে আমাদের চিন্তার সুযোগ নেই’

মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিলেও বাংলাদেশকে এখন চড়া মূল্য দিতে হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল।

শনিবার ( ১৮ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটনে বিশ্বব্যাংক আইএমএফ’র বার্ষিক সম্মেলনে তিনি জানান, যতো দ্রুত সম্ভব রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ।

পরে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে বাংলাদেশকে ডলার নয়, টাকার মানে ঋণ দেয়ার আগ্রহ জানায় এইচএসবিসি ও সিটি ব্যাংক ইন্টারন্যাশনাল। এক প্রতিবেদনে এখবর জানায় সময় নিউজ।

বিশ্বব্যাংক আইএমএফ’র বার্ষিক সম্মেলনের একটা বড় অংশ জুড়ে উন্নয়নশীল বিশ্বে ঋণ কার্যক্রম বাড়ানোর সুযোগ নেয় দাতা সংস্থাগুলো। ঠিক তেমনি গতিশীল অর্থনীতির দেশ হিসেবে বাংলাদেশকেও আকর্ষণীয় সুদহারে ঋণ প্রদানে আগ্রহ দেখাচ্ছে অনেকেই। ওয়াশিংটনে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সুবিধা অনুযায়ী বাংলাদেশকে ডলার নিয় স্থিতিশীল রেটে টাকার মানে ঋণ দেওয়ার কথা জানায় এইচএসবিসি ও সিটি ব্যাংক ইন্টারন্যাশনাল। এসময়, বাংলাদেশের বন্ড মার্কেটে বিনিয়োগেও আগ্রহ দেখায় প্রতিষ্ঠানগুলো।

এদিকে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকতে চায় বিশ্বব্যাংক। বার্ষিক সম্মেলনের এক সেশনে কক্সবাজার উন্নয়নেও কাজ করার কথা জানায় সংস্থাটি। যদিও, অর্থমন্ত্রী বলছেন, আর্থিক সহযোগিতা নয়, দ্রুত সময়ের মধ্যে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে বিশ্বব্যাংকের সক্রিয় ভুমিকা চায় বাংলাদেশ। 

তিনি বলেন, “সিদ্ধান্ত নিতে হবে একটা। আপনি কি টাকা চান নাকি রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাবেন। আমাদের উদ্দেশ্য একটাই তাদের ফেরত পাঠানো। দেশের মানুষ এটাই চায়। এর বাইরে আমাদের চিন্তার সুযোগ নেই।”

এসময়, ভারত, জাপান ও চীনের সহযোগিতা ছাড়া রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান কঠিন বলেও জানান অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল।