• রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০১ দুপুর

পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধির কারসাজি: ৩ আড়তদার চিহ্নিত

  • প্রকাশিত ০৯:৩৫ রাত নভেম্বর ৫, ২০১৯
পেঁয়াজ
মঙ্গলবার বিকেলে এক অভিযানে চট্টগ্রামে পেঁয়াজ আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের দুজনকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালত ইউএনবি

পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধির কারসাজিতে খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীদের সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা আটকদের কাছে তা জানতে চাওয়া হবে

কারসাজি করে পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দাম বাড়ানোর চক্রান্তে জড়িত থাকার অভিযোগে চট্টগ্রামের পাইকারী বাজার খাতুনগঞ্জের তিন আড়তদারকে চিহ্নিত করেছে জেলা প্রশাসকের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) বিকেলে এক অভিযানে এ অভিযোগে পেঁয়াজ আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের দুজনকে আটক করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম নেতৃত্বে পরিচালিত এ অভিযানে আটক দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিসি অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় একটি প্রতিষ্ঠানকে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

এর আগে দুপুর দেড়টার দিকে জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. উমর ফারুকের উপস্থিতিতে নগরীর স্টেশন রোডের নুপুর মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযান শেষে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ‘‘গতকাল (সোমবার) আমরা খাতুনগঞ্জে অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু ইনভয়েস এবং আমদানি ডকুমেন্ট সংগ্রহ করেছিলাম। সে অনুযায়ী চট্টগ্রামের তিনটি আমদানিকারকের ঠিকানা পেয়েছিলাম। তার পরিপ্রেক্ষিতে আজকে আমরা অভিযান পরিচালনা করেছি।’’

তিনি বলেন, দোকানের মালিককে না পাওয়ায় ম্যানেজার ও মালিকের ছেলেকে আটক করা হয়।

পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধির কারসাজিতে খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীদের সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা তাদেরকে এমন বিষয়সহ বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এছাড়া ওই প্রতিষ্ঠানটিও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, বলেন তিনি।

ম্যাজিস্ট্রেট আরও বলেন, এখান থেকে এসব আমদানিকারকরা টেকনাফের চক্রের সঙ্গে যোগসাজশে মিয়ানমারের পেঁয়াজের মূল্য আড়তদারদের ওপর চাপিয়ে দিচ্ছে। কাগজপত্র অনুযায়ী তাদের আনা পেঁয়াজ সোমবার বাজারে ঢুকেছে। আগের পেঁয়াজগুলো বেশি দামে বিক্রি না করতে পারলেও, সম্প্রতি আসা পেঁয়াজগুলো খুব চড়া দামে বিক্রি করছিলো তারা।